সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১৬ই আষাঢ় ১৪২৯ | ৩০ জুন ২০২২

কোহলিকে বাদ পড়ার হাত থেকে বাঁচান ধোনি

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০২০

25.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বাদ পড়ে যেতেন বিরাট কোহলি। তবে বাঁচান স্বয়ং মহেন্দ্র সিং ধোনি। এমনই কান্ড ঘটেছিল ভারতীয় দলে। প্রকাশ্যে আনলেন ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মঞ্জরেকর। নিজের ১৬ বছরের লম্বা ক্রিকেট কেরিয়ারে একাধিক ক্রিকেটারকে তুলে এনেছেন ধোনি। কে নেই সেই তালিকায়- রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, রবীন্দ্র জাদেজা, সুরেশ রায়না, ইশান্ত শর্মা, অশ্বিন। কোহলিকেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে গড়ে তুলতে অবদান রেখেছিলেন ধোনি। এমনটাই জানিয়েছেন মঞ্জরেকর।

মঞ্জরেকর স্মৃতি রোমন্থন করে জানাচ্ছিলেন, কীভাবে ২০১১-১২য় অস্ট্রেলিয়া সফরে খারাপ পারফরম্যান্স করে প্রায় বাদ চলে যাচ্ছিলেন কোহলি। সেই সময় তারকা ক্রিকেটারের ত্রাতা হয়ে দাঁড়ান ধোনি। সেই টেস্ট সিরিজে ভারত ০-৪ এ হোয়াইট ওয়াশ হয়। তরুণ কোহলির ওপর অনেক আশা ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের। তার আগে বিরাট সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দারুণ পারফর্ম করছিল। তবে টেস্টের ময়দানে সেভাবে তখনো ছাপ রাখতে পারছিলেন না।

টেস্ট ক্রিকেটে নিজের জায়গা পাকা করার জন্য কোহলির সামনে অস্ট্রেলিয়া সফর ছিল ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। তবে প্রথম চার ইনিংসেই শোচনীয়ভাবে ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। করেন যথাক্রমে ১১, ০, ২৩, ৯। সেই সময়েই বাকি দুই টেস্ট থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত প্রায় পাকা হয়ে গিয়েছিল। সেই সময়েই কোহলির পাশে দাঁড়ান ধোনি। ম্যানেজমেন্টকে বুঝিয়ে সুযোগ দেন বাকি দুই টেস্টে। তারপরেই ব্যাট হাতে চমক দেখান তরুণ কোহলি। তৃতীয় টেস্টেই দুই ইনিংসে করেন ৪৪, ৭৫। তারপর এডিলেডে চতুর্থ টেস্টে প্রথম শতরান করেন।

মঞ্জরেকর বলছিলেন, “বিরাট সবসময় রানের পথ খুঁজে নেয়। ২০১১-১২ অজি সফরে শতরান করে ও প্রথমবার। ভারত ০-৪ হারে সেই সিরিজ। তারপরে ইংল্যান্ডেও ০-৪ হোয়াইট ওয়াশ হয়। সেই সিরিজে কোহলিই একমাত্র ভারতীয় হিসাবে শতরান করেছিল। সিডনি টেস্টের পরেই কোহলিকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে ধোনি ওঁকে সেইসময় ব্যাক করেছিল। পারথে ৭৫ করার পর এডিলেডে তারপরেই শতরান করে ও।”

তারপরে আর ফিরে তাকাতে হয়নি কোহলিকে। চলতি প্রজন্মের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। টেস্টে সাতবার দ্বিশতরানের ইনিংস হাঁকিয়েছেন তিনি। ভারতীয় হিসাবে এমন নজির আর কারোর নেই। সবমিলিয়ে ২৭টি হান্ড্রেড করেছেন। ৮৬ টেস্টে তার মোট রান ৭২৪০। গড় ৫৩.৬২।

তবে টেস্ট কেরিয়ারের শুরুতে তিনিও একাধিকবার সমস্যায় পড়েছিলেন। ফের একবার অজিদের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে খেলবেন তিনি। সেখানে কি পুরোনো ফর্মে তাঁকে পাওয়া যায় কিনা, সেটাই দেখার।-ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


ঢাকা, মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ১৪৩১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন