সর্বশেষ
বুধবার ৩০শে কার্তিক ১৪২৫ | ১৪ নভেম্বর ২০১৮

ভবিষ্যদ্বাণী করে 'দরবেশ' আখ্যা পেলেন তরুণী

মঙ্গলবার, মার্চ ১০, ২০১৫

700058548_1425928540.jpg
যশোর প্রতিনিধি :
অষ্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড ওভালে ক্যাচ মিস করে তামিম ইকবাল যখন পুরো বাংলাদেশকে শঙ্কায় ফেলে দিয়েছিলেন, ঠিক তখনি যশোরে শুধু নামে মিল থাকায় তামিম নামে এক শিশুকে দিতে হয়েছে খানিকটা মাসুল।

অন্যদিকে, ইংল্যান্ডের হুবহু ২৬০ রানের (অল আউট) স্কোর আগেই বলে দিয়ে তানিয়া আফরিন রুমা নামের এক তরুণী পেয়েছেন দরবেশ আখ্যা। এ দুটি ঘটনা নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা।

বিকেলে ইংল্যান্ডকে ১৫ রানে হারিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করলেও শেষ মুহূর্তে তৈরি হয়েছিল টান টান উত্তেজনা। শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতিতে যখন বাংলাদেশের প্রয়োজন শেষ ২ উইকেট, তখন ৪৮তম ওভারের তৃতীয় বলে তাসকিন আহমেদের বল খেলতে গিয়ে লং অনে ক্যাচ তুলে দেন ক্রিস ওকস। বাংলাদেশের জয়ের পথে যিনি শেষ বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন।

কিন্তু লং অনে দাঁড়িয়ে থাকা তামিম ইকবাল সহজ ক্যাচটি ফেলে দিয়ে পুরো বাংলাদেশকে শঙ্কায় ফেলে দেন। এরপর রুবেল হোসেন পরপর দুটি উইকেট তুলে নিলে সারাদেশের সঙ্গে যশোরের মানুষও আনন্দে রাজপথে নেমে আসে। শহরের ক্রিকটপ্রেমীরা মিছিল ও বাজি ফুটিয়ে উল্লাস প্রকাশ করে। এ আনন্দে যোগ দিয়েছিলো ছোট শিশুরাও।

রাস্তায় বড়দের সঙ্গে ওই আনন্দে অংশ নেয় যশোর শহরের রেলগেট চোরমারাদিঘির পাড়ের বাসিন্দা তামিম নামে ছয় বছরের এক শিশুও। এসময় তার আপন চাচা রাহাত আলী বলেন, তোকে পুকুরে ফেলে দেব, তুই ক্যাচ মিস করলি। তোর জন্য ম্যাচ মিস হচ্ছিল।’ এসময় সত্যি সত্যি রাগে ক্ষোভে শিশুটিকে রাস্তার পাশে পুকুরে ফেলা দেয়ার চেষ্টা করলে তা ছিল কৃত্রিম রাগ। তবে সব রাগই ঠাণ্ডা হয়ে সর্বশেষ ম্যাচ জয়ের আনন্দে। এসময় শিশু তামিমকে আবারো বুকে জড়িয়ে ধরে আদর করেন তার চাচা।

বাংলাদেশের ২৭৫ রানের জবাবে ইংল্যান্ড যখন ব্যাট করতে নামে তখন যশোর শহরের শংকরপুরের বাসিন্দা মাস্টার্সের ছাত্রী তানিয়া আফরিন রুমা ভবিষ্যদ্বাণী করেন যে, ইংল্যান্ড ২৬০ রানের বেশি করতে পারবে না। রুমার ভাই দৈনিক সমাজের কথার বার্তা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। তাকে বেশ জোর দিয়েই একথা বলেছিলেন ছোট বোন রুমা। অবশ্য তার ভবিষ্যদ্বাণী শেষে সত্যিই হয়েছিল। ইংল্যান্ড ২৬০ রানে আউট হয়ে যায়। পত্রিকা দপ্তরে বসে খেলা দেখা শেষে মিলন বিষয়টি সবার সঙ্গে শেয়ার করেন ও তার বোনকে দরবেশ বলে আখ্যা দেন। এ ঘটনা কাকতালীয় হিসেবে মনে করা হলেও রুমার প্রশংসায় সবাই পঞ্চমুখ হয়ে যায়।

ঢাকা, মঙ্গলবার, মার্চ ১০, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এম এস এই লেখাটি ১৮৭৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন