সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মোবাইল ফোনে ভূমিকম্পের পূর্বাভাস

সোমবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৫

1019660023_1430128335.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
হাতের নাগালে থাকা মোবাইল ফোনটিই হতে পারে ভূমিকম্পের সময় সবচেয়ে বড় বন্ধু। ভূমিকম্পে ভবন কেঁপে ওঠার কয়েক সেকেন্ড আগেই আপনাকে ভূমিকম্প আসার খবর দিয়ে সতর্ক করে দিতে পারে স্মার্টফোনটি। ইতিমধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মে বেশ কিছু অ্যাপ রয়েছে যাতে ভূমিকম্প হলে তার নোটিফিকেশন পাওয়া যায়। কিন্তু গবেষকেরা এর চেয়ে উন্নত পদ্ধতি উদ্ভাবনে কাজ করছেন।

গবেষকেরা বলছেন, কম খরচে ভূমিকম্প সতর্কব্যবস্থা হতে পারে স্মার্টফোনের উন্নত অ্যাপস। সম্প্রতি গবেষকেরা জানিয়েছেন, ভূমিকম্প নজরদারি নেটওয়ার্ক ব্যবস্থার সাশ্রয়ী বিকল্প হিসেবে স্মার্টফোন ব্যবহার করা যেতে পারে। তারা এ তথ্য জানানোর পর অ্যাপস ব্যবহার করে ভূমিকম্পের আগাম বার্তা পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্মার্টফোনে থাকা গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম বা জিপিএস ভূমিকম্প শনাক্ত করতে পারে এবং শক্তিশালী কম্পন আঘাত হানার কয়েক সেকেন্ড আগেই তা জানিয়ে দিতে পারে।

সায়েন্স অ্যাডভান্সেস নামের একটি মার্কিন সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে গবেষণা সংক্রান্ত নিবন্ধ। ভূমিকম্প সতর্কীকরণ ব্যবস্থা প্রসঙ্গে গবেষক বেঞ্জামিন ব্রুকস জানিয়েছেন, অধিকাংশ বিশ্ববাসী ভূমিকম্প সংক্রান্ত সতর্কবার্তা পান না। কারণ, ভূমিকম্প নজরদারির জন্য প্রয়োজনীয় বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি বসানোর প্রয়োজন পড়ে।

গবেষকেরা বলেন, স্মার্টফোনের জিপিএস রিসিভার বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতির তুলনায় যদিও নিখুঁত নয় তবুও মাঝারি থেকে বড় মাত্রার ভূমিকম্প সহজে ধরতে পারে। গবেষকেরা ২০১১ সালে জাপানের ভূমিকম্প ও সুনামির তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখেছেন, স্মার্টফোনের জিপিএস পদ্ধতিতে যদি সতর্ক করা সম্ভব হতো তবে অনেক প্রাণ বাঁচানো সম্ভব হতো।

হাউসটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও গবেষণা নিবন্ধের লেখক ক্রেইগ গ্লেনি বলেন, ‘ভূমিকম্পের কম্পনের চেয়ে দ্রুত ছুটতে পারে ইলেকট্রনিক বার্তা।’

যুক্তরাষ্ট্রের ইউএসএআইডি নামের সংস্থাটি স্মার্টফোন সেন্সরের মাধ্যমে ভূমিকম্প নির্ণয়ের একটি পরীক্ষা চালিয়ে দেখতে সম্মত হয়েছে।

অ্যাপস ছাড়াই ভূমিকম্প সতর্কতা
হাই এন্ড বা দামি স্মার্টফোন না হলেও তাতে ভূমিকম্প টের পাওয়া যাবে। এতে অবশ্য কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার দরকার পড়বে না। স্মার্টফোন ও ট্যাবলেটে মৌলিক সিসমোমিটার থাকে যা কম্পন শনাক্ত করতে পারে। এ জন্য সমতল টেবিলের ওপর ফোনটিকে রাখতে হয়। ডিজিটাল ইনসপাইরেশন নামের একটি ব্লগের তথ্য অনুযায়ী, যে ফোনে সিসমোমিটার থাকে তাতে আলাদা অ্যাপ ডাউনলোড ছাড়াই শুধু ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করে ভূমিকম্প টের পাওয়া যায়। এই পদ্ধতিতে ভূমিকম্প টের পেতে ওয়েব ব্রাউজার থেকে http://ctrlq.org/earthquakes/seismograph.html লিংকটি চালু করতে হয়। এতে চলমান একটি তরঙ্গ দেখা যায়। কোনো কম্পন শনাক্ত করলে তখন এই তরঙ্গটি রিয়েল টাইমে তা সিসমোগ্রাফের মতো ধরতে পারে।

ভূমিকম্প নিয়ে অ্যাপস
ভূমিকম্প সংক্রান্ত নোটিফিকেশন দিতে পারে এমন বেশ কয়েকটি অ্যাপ গুগলের প্লে স্টোর, অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে রয়েছে। বেশ কিছু অ্যাপ অর্থের বিনিময়েও ডাউনলোড করা যায়। বিনা মূল্যের অ্যাপগুলোর মধ্যে রয়েছে আর্থকোয়াক অ্যালার্ট, কোয়াকস-আর্থকোয়াক নোটিফিকেশনস, জেমপালোকা, আর্থকোয়াক অ্যাপ প্রভৃতি।


ঢাকা, সোমবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // আর কে এই লেখাটি ৫৮০৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন