সর্বশেষ
রবিবার ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নাসার হৃৎস্পন্দন শনাক্তকারী যন্ত্রে নেপালে চারজনকে জীবিত উদ্ধার

শনিবার, মে ৯, ২০১৫

273402237_1431182389.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপদগ্রস্ত মানুষের সন্ধান পেতে নাসার 'ফাইন্ডার' প্রযুক্তির মাধ্যমে চারটি জীবন বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত নেপালে চাপা পড়া এমনই চারটি প্রাণের খোঁজ বের করা হয়েছে নাসার সহায়তায়। এই যন্ত্রের মাইক্রোওয়েভ রাডারের মাধ্যমে মানুষের হৃৎস্পন্দন শনাক্ত করা হয়।

আমেরিকার ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটিস সায়েন্স অ্যান্ড টেকনলজি ডিরেক্টোরেট এর সঙ্গে এক যৌথ উদ্যোগে এই প্রোটোটাইপ যন্ত্রটি তৈরি করেছে নাসা। খুব বড় কোনো যন্ত্র নয়, একটি স্যুটকেসের মতো সাইজ হবে। মাটির ১০০ ফুট ওপর থেকে ধ্বংসস্তূপের ৩০ ফুট নিচে অথবা কংক্রিটের ২০ নিচের কোনো মানুষ জীবিত থাকলে তার হৃৎস্পন্দন ধরতে পারবে দারুণ এই যন্ত্রটি। এমনকি যন্ত্রটি অন্য প্রাণীর সঙ্গে মানুষের হৃৎস্পন্দনও পার্থক্য করতে পারে। অর্থাৎ যদি চাপা পড়া মানুষের আশপাশে কোনো ইঁদুর বা বিড়াল থাকে তবে যন্ত্রটি মানুষের হৃৎস্পন্দনটিকেই শনাক্ত করবে।

নেপালে ভূমিকম্পে বহু মানুষ ধসে পড়া স্থাপনার নিচে চাপা পড়েছে। নাসা তার স্যাটেলাইটের সহায়তায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার একটি মানচিত্র তৈরি করেছে। এরপর যন্ত্রটি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে চাপা পড়া চারজনের হৃৎস্পন্দন শনাক্ত করা হয়। তা ছাড়া ড্রোনের সাহায্যে উচ্চ রেজ্যুলেশনের দ্বিমাত্রিক এবং ত্রিমাত্রিক ছবি তোলা হয়। সূত্র : ডিএনএ ইন্ডিয়া


ঢাকা, শনিবার, মে ৯, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // আর কে এই লেখাটি ১৬১৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন