সর্বশেষ
শনিবার ৭ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

লিথুয়ানিয়ায় উচ্চশিক্ষা শেষে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ

বৃহস্পতিবার, জুন ২৫, ২০১৫

882558982_1435232846.png
বিডিলাইভ ডেস্ক :
বাল্টিক সাগরের তীরে দক্ষিণ ইউরোপে অপরূপ সৌন্দর্যের এক দেশ লিথুয়ানিয়া। ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত এ দেশে সফলভাবে পড়াশোনা শেষে রয়েছে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ। সেনজেনভুক্ত একটি রাষ্ট্রে উন্নত পড়াশোনার মাধ্যমে আপনার সামনে খুলে যাবে পুরো ইউরোপের দরজা।

স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে লিথুয়ানিয়া। এর রাজধানী ভিলনিয়াস। এর পার্শ্ববর্তী দেশ লাটভিয়া, ডেনমার্ক, সুইডেন এবং পোল্যান্ড। লিথুয়ানিয়ার ক্লাইপেডিয়া ইউনিভার্সিটি দিচ্ছে স্বল্প খরচে মানসম্মত শিক্ষার সুযোগ। ভর্তি ফি, টিউশন ফি, বিমানভাড়াসহ সাড়ে ৪ থেকে সাড়ে ৬ লাখ টাকা খরচ করেই লিথুয়ানিয়ায় উচ্চ শিক্ষা নিতে পারবেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা।

কিছু প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ঝামেলা ছাড়াই একজন শিক্ষার্থী ক্লাইপেডিয়া ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হতে পারেন। শিক্ষার্থীকে প্রথমে নিজের পছন্দের বিষয় বাছাই করতে হবে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্যের শিক্ষার্থীদের জন্যে রয়েছে আকর্ষণীয় সব বিষয়।

বিজনেস ম্যানেজমেন্ট, ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, নার্সিং, হোটেল ম্যানেজমেন্টসহ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে রয়েছে শত‍াধিক বিষয়। বিষয় বাছাইয়ের পর শিক্ষা জীবনের সব পরীক্ষার তথ্য এবং পাসপোর্টের তথ্য পাঠাতে হবে ইউনিভার্সিটিতে। একই সঙ্গে ২০০ ইউরো অ্যাপ্লিকেশন ফি জমা দিতে হবে ব্যাংকের মাধ্যমে।

লিথুয়ানিয়ায় শিক্ষার্থীর এপ্রোভাল লেটারকে বলা হয়- এসকেভিসি লেটার। এ প্রক্রিয়ার জন্যে ৪ থেকে ৮ সপ্তাহ সময় লাগবে।

এসব প্রক্রিয়ার পরই ভারতের দিল্লির লিথুয়ানিয়া এম্বাসিতে ভিসার জন্যে আবেদন করবেন শিক্ষার্থী। এক সপ্তাহের মধ্যেই ভিসা হাতে চলে আসে। এরপরই লিথুয়ানিয়া যাওয়ার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়।

লিথুয়ানিয়ায় চাইলে শিক্ষার্থীরা পার্টটাইম চাকুরি করে নিজের খরচ চালাতে পারেন। অবশ্য শিক্ষার্থীর টিউশন ফির সঙ্গেই এক মাসের থাকা খাওয়ার খরচও দিতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়কে।

টিউশন ফি ২ হাজার ১শ’ ইউরো থেকে ৪ হাজার ইউরো পর্যন্ত হয়। এখানেই ১ মাসের থাকা খাওয়ার খরচ অর্ন্তভুক্ত থাকে। টিউশন ফি জমা দেওয়ার সময় শিক্ষার্থীকে ন্যূনতম ৮ লাখ টাকার ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেখাতে হয়। আর প্রতিমাসে লিথুয়ানিয়া থাকতে একজন শিক্ষার্থীর জীবনযাপনের ধরনের ওপর নির্ভর করে ২০০ থেকে ৪০০ ইউরোর মতো খরচ হয়।

লিথুয়ানিয়া পড়াশোনার বড় সুবিধা হলো- এখানে সফলভাবে কোর্স সম্পন্ন করতে পারলে সেনজেনভুক্ত ২৬টি দেশে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পাওয়া যায়। সেনজেনভুক্ত দেশগুলো হলো-অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, চেক রিপাবলিক, ডেনমার্ক, এস্তোনিয়া, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রিস, হাঙ্গেরি, আইসল্যান্ড, ইতালি, লাটভিয়া, লিথিউয়নিয়া, লুক্সেমবার্গ, মাল্টা, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, পোল্যান্ড, পর্তুগাল, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড ও লিচেনস্টাইন।

লিথুয়ানিয়ায় শিক্ষার্থীর ভর্তির জন্যে দূতাবাস, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং মেডিকেলের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের বিষয়ে সহায়তা কিংবা এ সর্ম্পকে আরও জানতে পারেন faithedubd@gmail.com ইমেইলে যোগাযোগ করে। এছাড়া, রাজধানীর মগবাজারের গ্ল্যান্ড প্লাজার ফেইথ কনসালটেন্টসে যোগাযোগ করতে পারেন সরাসরি।

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জুন ২৫, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৮৩৭৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন