সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১লা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৫ নভেম্বর ২০১৮

কোপা আমেরিকার অজানা এগারো

শনিবার, জুলাই ৪, ২০১৫

412092334_1436018904.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
রাত পোহালেই কোপার শেষ লড়াই৷ জমে উঠবে দু'দেশ। হোম ফেভারিট চিলি কিংবা লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনার মাথায় উঠবে সেরার শিরোপা৷ ফাইনালের লড়াই দেখার আগে লাতিন আমেরিকার টুর্নামেন্ট নিয়ে জেনে নেয়া যাক এগারোটি অজানা তথ্য৷

১. ৪৪তম কোপার আয়োজন প্রথমে হওয়ার কথা ছিল ফুটবলের মক্কা ব্রাজিলে৷ কিন্তু ২০১৩ কনফেডারেশন কাপ, ২০১৪ বিশ্বকাপ ও ২০১৬ অলিম্পিক আয়োজনের দায়িত্ব থাকায় শেষমেশ কোপা দলে যায় চিলিতে৷ অর্থাৎ ৪৫তম কোপার আসর বসবে পেলের দেশে৷

২. চলতি কোপাতে অংশ নেয়ার জন্য স্পেনকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল৷ কিন্তু স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন কোপার প্রস্তাবে রাজি হয়নি৷ মৌসুম শেষে স্প্যানিশ তারকাদের ছুটি নষ্ট করতে চায়নি ফেডারেশন৷ সে কারণেই কোপার মঞ্চে না নামার সিদ্ধান্ত৷

৩. ২০১৫ কোপা চ্যাম্পিয়ন ২০১৭ রাশিয়া কনফেডারেশন কাপে সরাসরি কোয়ালিফাই করবে৷ লিওনেল মেসিরা খেতাব জিতলে উরুগুয়ের সঙ্গে এক আসনে বসবে আর্জেন্টিনা৷ সর্বোচ্চ ১৫বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে উরুগুয়ে৷

৪. দক্ষিণ আমেরিকার বাইরের দল হিসেবে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মেক্সিকো৷

৫. ১৯৪৯-এ কোপা ফাইনালে ৭-০ গোলে জিতেছিল ব্রাজিল৷ টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সেটাই এখনও পর্যন্ত ফাইনালে সবচেয়ে বড় জয়৷ তবে কোপায় সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড রয়েছে আর্জেন্টিনার দখলে৷ ১৯৪২ সালে উরুগুয়েকে ১২ গোল দিয়েছিল লা অ্যালবিসেলেস্তে৷

৬. পেরু ও লিমার জাতীয় ফুটবল স্টেডিয়ামে সবচেয়ে বেশিবার কোপার আসর বসেছে৷ ৭৬টি ম্যাচ হয়েছে এখানে৷

৭. চলতি টুর্নামেন্ট মিলিয়ে মোট ২৭বার কোপার ফাইনালে খেলেছে ম্যারাডোনার দেশ, যা টুর্নামেন্টের রেকর্ড৷ সবচেয়ে বেশি ৩৪বার সেমিফাইনাল ম্যাচ খেলেছে উরুগুয়ে৷

৮. ১৯২৭ সালে কোপায় ৬ ম্যাচে হয়েছিল ৩৭টি গোল৷ অর্থাৎ প্রতি ম্যাচে গোলের গড় ছিল ৬.১৭৷ এই রেকর্ড এখনো অক্ষুন্ন৷ সবচেয়ে কম গোল হয়েছিল ব্রাজিলে ১৯২২-এর কোপায় (২২টি)৷

৯. নর্বের্তো মেন্ডেজ (আর্জেন্টিনা) ও জিজিনহো (ব্রাজিল) হলেন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা৷ ১৭টি গোলের পাশে লেখা রয়েছে তাদের নাম৷

১০. কোপায় কনিষ্ঠতম ফুটবলার হিসেবে গোল করেছিলেন জনিয়র মন্টানো৷ কলম্বিয়ার এই অ্যাটাকিং মিডিও ১৬ বছর ১৭২টি প্রথম গোল করেছিলেন৷

১১. দক্ষিণ আমেরিকার দল হিসেবে ভেনিজুয়েলা, চিলি ও ইকুয়েডর এখনো পর্যন্ত কোপা জয়ের স্বাদ পায়নি৷

ঢাকা, শনিবার, জুলাই ৪, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এম এস এই লেখাটি ১৪০০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন