সর্বশেষ
শনিবার ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৭ নভেম্বর ২০১৮

ভারতে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৩, ২০১৫

1086356152_1437665283.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আন্তর্জাতিক চাহিদাসম্পন্ন প্রায় সব বিষয়েই পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে। কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, বিজনেস, অ্যাকাউন্টিং, মেডিসিন, ডেন্টাল, ফার্মেসি, নার্সিং, ফিজিওথেরাপি, ট্যুরিজম অ্যান্ড হোটেল ম্যানেজমেন্ট ছাড়াও অনেক বিষয়ে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, পোস্ট-গ্র্যাজুয়েট অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে এ দেশে।

যুক্তরাষ্ট্র, চীন, বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে শিক্ষার্থীরা বর্তমানে ভারতকে তাদের উচ্চশিক্ষার গন্তব্য হিসেবে বেছে নিচ্ছে। বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়ারিং ও প্রযুক্তি বিষয়গুলোতে ভারতীয় ডিগ্রির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি রয়েছে। আর এক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিচ্ছে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউটস অব টেকনোলজি আইআইটিস। ভারতজুড়ে বর্তমানে ১৬টি আইআইটি রয়েছে যেগুলো ইঞ্জিনিয়ারিং, প্রযুক্তি ও বিজ্ঞান বিভাগে পড়াশোনার ওপর ফোকাস করছে। এছাড়া দেশটির উচ্চশিক্ষার প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে বেঙ্গালুরুতে অবস্থিত ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এবং ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউটস অব ম্যানেজমেন্ট আইআইএমস।

আইইএলটিএস : ভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পড়াশোনার জন্য আইইএলটিএস বা টোফেল স্কোর থাকা বাধ্যতামূলক নয়। তবে আইইএলটিএস স্কোর থাকাটা অবশ্যই ভালো কারণ সেখানে একাডেমিক প্রোগ্রামগুলো ইংরেজিতেই প্রদান করা হয়। এক কথায়, বিশ্বায়নের এই যুগে ইংরেজিতে দক্ষতা না থাকাটা অযোগ্যতার মধ্যেই পড়ে যায়।

খরচ : এইচএসবিসির সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, উচ্চশিক্ষার জনপ্রিয় গন্তব্যগুলোর মধ্যে ভারতে পড়াশোনার খরচ সবচেয়ে কম। অর্থাৎ ভারতে কোনো বিদেশি শিক্ষার্থীকে তার উচ্চশিক্ষার জন্য বছরে মাত্র ছয় হাজার ডলার খরচ করতে হয়। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান, সাবজেক্ট ও মান ভেদে খরচ ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। সেইসঙ্গে জীবনযাপনের খরচও অনেক কম। আর বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য পার্শ্ববর্তী দেশ হওয়াতে কিছু বিশেষ সুবিধা তো রয়েছেই।

স্কলারশিপ : ভারতে স্কলারশিপ নিয়েও উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে প্রায়ই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়ে থাকে। যেমন সম্প্রতি ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি বোম্বে [আইআইটিবি] বৃত্তিতে স্নাতকোত্তর ও ডক্টরেট পর্যায়ে বৃত্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। জার্মান একাডেমিক এক্সচেঞ্জ সার্ভিসের [ডাড] সহযোগিতায় আইআইটিবি বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য এ বৃত্তি অফার করেছে। এ বৃত্তি নিয়ে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে ইঞ্জিনিয়ারিং সিস্টেম, বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ওয়াটার রিসোর্স ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি এবং ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে আইআইটিবিতে পড়ার সুযোগ রয়েছে। আর বৃত্তির আওতায় প্রতিষ্ঠানটিতে পিএইচডি পর্যায়ে রিনিওয়াবল এনার্জি, ক্লাইমেট চেঞ্জ, হেলথ, বায়োডাইভার্সিটি অ্যান্ড গুড গর্ভন্যান্স বিষয়ে পড়াশোনা করা যাবে। কোর্সের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন http://www.iitb.ac.in আর বৃত্তির বিষয়ে জানতে ভিজিট করতে পারেন http://www.daaddelhi.org ।

ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন : ঢাকাস্থ ভারতীয় কমিশন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের দেশটিতে উচ্চশিক্ষার বিষয়ে সার্বিক পরামর্শ দিয়ে থাকে। তাই উচ্চশিক্ষার বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করতে পারেন : ইন্ডিয়ান হাইকমিশন, ঢাকা : বাড়ি ২, রোড ১৪২, গুলশান-১।

সপ্তাহের রবি থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভারতীয় হাইকমিশন খোলা থাকে।

গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইট : ভারতে উচ্চশিক্ষার বিস্তারিত ও দেশটির বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে জানতে ভিজিট করতে পারেন www.studyinindia.ind.in; www.uohyd.ac.in; www.aus.ac.in; www.cuchd.in; www.amu.ac.in


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৩, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৭৫৫৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন