সর্বশেষ
রবিবার ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সাজে শরতের শুভ্রতা

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৮, ২০১৫

1116236223_1444293780.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
শরৎ মানেই শুভ্রতা। আর শুভ্রতা মানেই স্নিগ্ধতা। তাইতো আমাদের দিনগুলো শুরু হোক শরতের শুভ্র সাজে। পোশাকে সাদার ছোঁয়া আর সাজে চাই পরিপাটি ভাব। হালকা মেকআপের এই লুকে আপনি হয়ে উঠবেন অসাধারণ।

শুভ্র শরৎ সাজের মেকআপ করতে চাইলে বিউটিশিয়ান ফারনাজ আলমের পরামর্শগুলো একবার দেখে নিতে পারেন-

# সাজে শুভ্রতা

প্রথমে মুখ ভালো করে ধুয়ে এক টুকরা বরফ ঘষে নিন। এতে গরমে মুখ ঘামাবে না। এবার সামান্য লিকুইড ফাউন্ডেশন হাতে নিয়ে একটি বাফিং ব্রাশ দিয়ে বেইজ করে নিন। ব্রাশ দিয়ে এমনভাবে ফাউন্ডেশন ব্লেন্ড করে দিন যাতে ত্বকের সঙ্গে মিশে যায়। চোখের নিচের কালো দাগের জন্য সামান্য কনসিলার লাগাতে পারেন। পাফ ভিজিয়ে মুখে হালকাভাবে প্যানকেক দিয়ে বেইজটা ভারি করে নিন। এতে মেকআপটা ভালোভাবে সেট হবে।

সবশেষে ফিনিশিং পাউডার দিয়ে পুরো মেকআপ সেট করে নিন। থিক একটি ব্রাশ দিয়ে মুখে ভালো করে পাউডার ব্লেন্ড করে দিন। ডার্ক ব্রাউন কালার কন্টোরিং পাউডার দিয়ে দুই পাশের গালে কন্টোরিং করে নিন। চিক ও কানের মাঝখান থেকে একটু নিচ পর্যন্ত টেনে কন্টোরিং করে নিন। এবার দুই চিকে ব্রাউন কালার ব্লাশন দিন। ব্লাশন ব্রাশ দিয়ে ভালোভাবে সমান পরিমাণ ব্লাশন ব্যবহার করুন। চোখে প্রথমে হালকা ব্রাউন কালার আইশ্যাডো দিন।

এবার আইলিডের ওপর গোল্ডেন আইশ্যাডো ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। সবশেষে হাইলাইটে সিমারি হোয়াইট কালার আইশ্যাডো দিন। চোখকে প্রমিনেন্ট করতে টেনে আইলাইনার ব্যবহার করুন। আপনি চাইলে আইল্যাশ ব্যবহার করতে পারেন। এবার গাঢ় করে মাশকারা দিন।

ডার্ক ব্রাউন আইব্রো শ্যাডো বেছে নিন। চিকন ব্রাশের সাহায্যে এই আইব্রো শ্যাডো দিয়ে আইব্রো শেপ করে নিন। স্কিন কালার লিপলাইনার দিয়ে ঠোঁট ভালো করে একে নিন। এবার ঠোঁটে স্কিন কালার লিপস্টিক দিন। সবশেষে সামান্য সিমারি গোল্ডেন লিপগ্লস দিন। সামনের দিকে একপাশ সিঁথি করে চুল হালকা পাফ করে নিন। এবার পিছনের চুলগুলো চিকন বেণী করে পেঁচিয়ে খোঁপা করে নিন। দেখতে ভালো লাগবে।

# পোশাকে সাদার ছোঁয়া

শরতের সাজে শাড়িই বেশ ভালো মানায়। একরঙা সাদা বা অফ-হোয়াইট শাড়ি বেছে নিতে পারেন। দেখতে মন্দ লাগবে না। তাবে ব্লাউজটা হওয়া চাই একটু গর্জিয়াস। মনে রাখবেন, শাড়ির সৌন্দর্যটা পুরোপুরি নির্ভর করছে ব্লাউজের কাটিং এবং ডিজাইনের ওপর। ভারি কাজের একটি ব্লাউজ শাড়িকে আরো বেশি গর্জিয়াস করে তোলে। তবে আপনার শাড়ি যদি গর্জিয়াস হয় তাহলে সিম্পল ব্লাউজ পরলে বেশি ভালো লাগবে। চাইলে স্লিভলেস ব্লাউজ পরতে পারেন। মানাবে ভালো।

# হালকা গয়না

যেহেতু সাজটা স্নিগ্ধ তাই জমকালো গয়না না পরাই ভালো। কানে হালকা একটা দুল পরে নিন। তবে সাদা বা সিলভার রঙের দুল বেছে নিতে পারেন। আর হাতে ভারি একটা ব্রেসলেট পরুন। শাড়ির সঙ্গে এ ধরনের গয়না আপনাকে আরো বেশি স্নিগ্ধ করে তুলবে।

# জুতা ও ব্যাগ
শাড়ির সঙ্গে হাই হিল পরলে দেখতে ভালো লাগবে। তবে সেমি হাইহিলও পরা যায়। আর অবশ্যই একটি ক্লচ ব্যাগ। সবশেষে দেয়া চাই মিষ্টি ঘ্রাণের সুগন্ধি।

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৮, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ১৭৮৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন