সর্বশেষ
শুক্রবার ৬ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পূজায় বেছে নিন সঠিক গয়না

সোমবার, অক্টোবর ১২, ২০১৫

1745917712_1444631746.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
নিজের জন্য হোক বা প্রিয়জনের জন্যই, গয়না কিনতে নারীরা ভালোই বাসেন।

আর এখনতো পূজার মৌসুম নিজেকে সাজাতে নতুন গয়না তো চাই।

কিন্তু সাধ আর সাধ্যের মধ্যে সমতা থাকে কতটুকু? তাই কিনতে গিয়ে ভাবতে হয়, কি কিনব? সোনা না রূপা? এখন কোনটা চলতি ফ্যাশন? সরু নেকলেস না ফ্যাশনেবল ব্রেসলেট? সেই সমস্যার সামধানেই রইল কিছু টিপস-

১) প্রথমেই ভেবে নিন আপনার পছন্দের গয়না কোনগুলি। কস্টিউম জুয়েলারি, স্লিক ডিজাইন, জাঙ্ক জুয়েলারি এগুলোর মধ্যে কোনটা রয়েছে আপনার প্রায়োরিটি লিস্টে।

২) নিজের জন্য যদি হালফিলের সেরা ফ্যাশনের জুয়েলারিটা বাছতে চান তাহলে হাতে একটু সময় নিয়ে দোকানে গিয়ে পরে পরে দেখুন, কোনটায় আপনাকে বেশি ভালো মানায়।

৩) সবচেয়ে ভালো হয়, যে পোশাকের সঙ্গে আপনি গয়নাটি পরবেন বলে ভেবেছেন, সেটা পরেই যদি একবার ট্রায়াল দেওয়া যায়। অসুবিধে হলে সঙ্গে কোনও বন্ধুকে রাখতে পারেন।

৪) অন্য কারও জন্য যদি গয়না পছন্দ করতে চান, তাহলে কয়েকদিন ধরে তার ফ্যাশন ট্রেন্ডটা একটু ফলো করুন। তাহলে তাদের পছন্দ-অপছন্দ সম্পর্কেও একটা স্বচ্ছ ধারণা তৈরি হয়ে যাবে। বা তাকে জিজ্ঞাসা করে নিতে পারলে আরও ভালো হয়।

৫) গয়না বাছুন আপনার স্কিন টোনের সঙ্গে মিলিয়ে। এতদিন যদি না ভেবে থাকেন, আপনার স্কিন টোন কুল না ওয়র্ম তাহলে এবারে ভাবুন। কিভাবে? অনেকের গায়ের রঙ এত ফরসা হয় যে কবজিতে নীল ধমনী স্পষ্ট দেখা যায়। তার মানে অবশ্য তার গায়ের রঙ বিবর্ণ নয়। এমনকী ডার্ক বা ট্যান স্কিন টোনের লোকজনেরও কুল স্কিন হতে পারে। আর আপনার ধমনীর রঙ যদি ঈষৎ সবুজ ঘেঁষা হয়, তাহলে আপনার ত্বকের টেক্সচার ওয়র্ম। কুল স্কিন টোনে সিলভার, হোয়াইট গোল্ড, প্ল্যাটিনামের গয়না খুব সুন্দর মানায়। আর ওয়র্ম স্কিন টোনে গোল্ড, ব্রাশ, কপার জুয়েলারি এক্কেবারে পারফেক্ট ফিটিং। তবে নিজস্ব পছন্দ অনুযায়ী সোনা বা রূপার গয়নায় রদবদল ঘটাতেই পারেন।

৬) শুধু রঙ নয়, টেকসইও গয়না কেনার ব্যাপারে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তারচেয়ে বেশী খরচ। কত ক্যারেটের গয়না কিনছেন তার উপরেই দাম নির্ভর করবে। তাই প্রথমে নিজের পকেটের ওজনটা বুঝেই ময়দানে নামুন।

৭) রূপার গয়না পরে ফেলে রাখলে কালো হয়ে যায়। তাই গয়না পরার পর কিভাবে তা পরিষ্কার করবেন সেই টিপসগুলোও জেনে নিন। কোনও ড্রাই জায়গায় বাক্সে ভরে গয়না রখবেন। কখনও ভিজে, স্যাঁতসেঁতে জায়গা বাছবেন না এর জন্য। সোনা বা রূপার গয়নায় দেখভালের ক্ষেত্রে কোনও কম্প্রোমাইজ করবেন না।

৮) যদি খুব দামী গয়না কেনার পরিকল্পনা করেন এবং নিজে ঠিক বাছাই করে উঠতে না পারেন, তাহলে দোকানের কর্মচারীদের সাহায্য নিন। তবে কেনার পর গয়না বাক্সবন্দী করে ফেলে রাখবেন না। সদ্ব্যবহার করুন।


ঢাকা, সোমবার, অক্টোবর ১২, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // ম পা এই লেখাটি ৭৮১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন