সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছিমছাম পশ্চিমা পোশাকে

রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০১৫

517184985_1445760074.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
পশ্চিমা পোশাক, বিশেষ করে গ্রীষ্মের জন্য তৈরি পশ্চিমা পোশাকগুলো একটু খোলামেলা হয়। এতে গরমে পাওয়া যায় আরাম। ছিমছাম এসব পোশাক যেকোনো জায়গাতেই মানানসই। দেখতেও সুন্দর লাগে। সাধারণত তরুণীরাই পশ্চিমা পোশাককে বেছে নেন। এর কারণ একটাই- আরামদায়কের পাশাপাশি পোশাকটি হয় আকর্ষণীয় এবং আধুনিক।

কাপড় যেমনই হোক না কেন, এর কাটিং আর প্যাটার্নে পশ্চিমা আমেজ রাখা হাল আমলের ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে। সাধারণ সুতি কাপড় দিয়েও আপনি এ ধরনের পোশাক বানিয়ে নিতে পারেন। দেখতে মন্দ লাগবে না। কোনোটা লং প্যাটার্নের হয়ে থাকে, আবার কোনোটা শার্ট-প্যান্ট আদলের হয়ে থাকে।

আবার কিছু থাকে গাউন স্টাইলের। তবে এ ধরনের গাউনগুলো বেশি লং না হওয়াই ভালো, এতে ফ্যাশনেবল মনে হবে। শার্ট-প্যান্ট প্যাটার্নের পোশাকগুলো লিনেন কাপড়ের হলে ভালো হয়। পরতে আরাম হবে। আর এগুলো একটু ঢিলেঢালাভাবেই বানানো উচিত। কন্ট্রাস্ট রং বেছে নিলে মানাবে ভালো।

কিছু পোশাক রয়েছে লং ফ্রক স্টাইলে। এগুলোর কোমরে চিকনা একটি ইলাস্টিক লাগানো থাকে; যা সিঙ্গেল ফ্রককে আরেকটু ভিন্নভাবে উপস্থাপন করে। এ ধরনের পোশাকে কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রীদের বেশ ভালো মানায়। এমনকি যেকোনো অনুষ্ঠানেই এটি মানানসই।

ফ্লোরাল প্রিন্ট, চেক প্রিন্ট অথবা একরঙাও হতে পারে এ ধরনের পোশাক। তবে ক্ষেত্রবিশেষে এর ডিজাইনে কিছুটা ভিন্নতা আনাই যায়। স্টোন অথবা মুক্তার ব্যবহার, শার্টিন কাপড়ের পাড় অথবা চিকন কোনো লেস এ ধরনের পোশাককে আরো গর্জিয়াস করে তোলে। স্লিভলেস পশ্চিমা পোশাকে বেশ ফ্যাশনেবল মনে হয়। তবে আপনি চাইলে থ্রি-কোয়ার্টার অথবা হাফহাতার পোশাক পরতে পারেন। দেখতে খারাপ লাগবে না।

এ ধরনের পোশাকের সঙ্গে হাই হিলও ভালো লাগে আবার ফ্লাট জুতাও বেশ মানায়। জায়গাভেদে পোশাকের সঙ্গে জুতা বাছাই করুন। আর অর্নামেন্টস পরার খুব একটা প্রয়োজন নেই। ছিমছাম বাহারি পোশাকেই আপনাকে অন্যরকম সুন্দর লাগবে।

পশ্চিমা পোশাকের সঙ্গে জমকালো মেকআপ না করাই ভালো। হালকা বেইজ মেকআপ করতে পারেন। চোখে টেনে কাজল লাগাতে পারেন। আর মাশকারাও ব্যবহার করতে পারেন। তবে ওয়াটারপ্রুফ হওয়াটাই ভালো। ঠোঁটে গাঢ় লিপস্টিক লাগাতে পারেন। চুল খোলা রাখতে পারেন আবার পনিটেলও করতে পারেন।

পরামর্শ :

নিজের পছন্দমতো গজকাপড় কিনে এ ধরনের পোশাক বানাতে পারেন। এতে মাপটা ঠিকমতো হবে। রেডিমেড পোশাক কিনলে আগে ট্রায়াল করে পরে নিন, যাতে ফিটিংসের সমস্যা না হয়।

পোশাকে যদি কোনো স্টোন ব্যবহার করেন তাহলে ভালো মানের স্টোন ব্যবহার করুন। না হলে স্টোনের কারণে পোশাক নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
     
জর্জেট কাপড়ের নিচে ফলস কাপড় লাগাবেন। না হলে ফেসে যাবে। বৃষ্টির দিনে এ ধরনের পোশাকের সঙ্গে হাই হিল না পরে সেমি হাই হিল পরতে পারেন।


ঢাকা, রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ৯৬৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন