সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এইচটিসির মডেল নকল করেছিল অ্যাপল!

রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০১৫

2066419009_1445765590.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
গেল সপ্তাহটি তাইওয়ানিজ মোবাইল ফোন এবং ট্যাবলেটনির্মাতা এইচটিসির জন্য ব্যস্ততার মধ্য দিয়ে গেছে। আর মিডিয়াতেও তাদের ছিল বেশ রমরমা অবস্থান। প্রতিষ্ঠানটির নতুন উন্মেচিত এ৯ ফোনটি অনেক পত্রিকার পাতায় চেহারা দেখিয়েছে। সম্ভবত নিকট অতীতে প্রতিষ্ঠানটির আর কোনো পণ্য এতটা কভারেজ পায়নি।

বিষয়টি এইচটিসির জন্য সুখকরই হওয়ার কথা। যে কোনো প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড এবং জনসংযোগ বিভাগের জন্য বাড়তি মিডিয়া কভারেজ পরম আরাধ্য একটি বিষয়। কিন্তু বিশ্বের তৃতীয় গুরুত্বপূর্ণ মোবাইল ফোন নির্মাতার জন্য বুমেরাং হয়েছে প্রায় প্রতিটি সংবাদ। আসুন চোখ বুলিয়ে নেই খবরগুলোয়-

গ্যাজেট রিভিউয়ের জন্য বিখ্যাত সাইট বিজিআর ১৫ অক্টোবরেই গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সংবাদ শিরোনাম করেছিল- ‘ফাঁস: এই হল এইচটিসির আইফোন’।

গ্যাজেটবিষয়ক আরেক শীর্ষ সাইট গিজমডোর শিরোনাম ছিল- ‘এইচটিসি ওয়ান এ৯: যেন অর্ধেক দামে অ্যান্ড্রয়েডচালিত আইফোন’।

দ্য ভার্জেন প্রতিবেদন- ‘এইচটিসি’র ওয়ান এ৯ হল ৩৯৯ ডলার মূল্যে অ্যান্ড্রয়েডে চলা আইফোন’।

এতো গেল খটমটে সব প্রযুক্তিবিষয়ক সাইটের খবর। ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস-এর শিরোনামে বলা হয়েছে- অ্যাপল আইফোন ৬এস-এর মতো ডিজাইন দেখা গেল এ৯-এ। আসছে ফ্ল্যাগশিপ এম সিরিজেও’। ইউএসএ টুডে’র  খবর- ‘এইচটিসি ওয়ান এ৯: আইফোনের নকল নয় তবে তেমনই দেখতে’।

পাঠক সম্ভবত এতক্ষণে বুঝে ফেলেছেন ঘাপলাটি কোথায়। প্রায় প্রতিটি খবরই নেগেটিভ ব্র্যান্ডিং হয়ে দাঁড়িয়েছে এই সাড়ে পাঁচশ’ কোটি ডলার মূল্যের প্রতিষ্ঠানটির জন্য। শেষ পর্যন্ত এইচটিসি’র উত্তর এশিয়া বিভাগের প্রেসিডেন্ট জ্যাক টং মুখ খুলেছেন মাইক্রোফোনে। তাইওয়ানে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বললেন- ‘অ্যাপলই আসলে আমাদের ডিজাইন নকল করেছে’।

“আমরা নকল করছি না। ২০১৩ সালেই আমরা ইউনিবডি মেটাল ফোন তৈরি করেছিলাম। অ্যান্টেনা ডিজাইনের কথা যদি তুলি- অ্যাপলই আমাদের নকল করে সেটের পেছন দিকে অ্যান্টনা বসিয়েছে।”

তা’হলে বিষয়টি কি দাঁড়াল? এতো পত্রিকা যে ‘আইফোনের নকল’ বলে ধুয়ে দিল সেটা সত্যি না-কি ঘরভর্তি সাংবাদিকের সামনে এইচটিসি’র কর্তা যা বললেন সেটা সত্যি!

সত্যির দাবিদার যেই হোন না কেন, এই হট্টগোলে একমাত্র লাভ সম্ভবত অ্যাপলের। ভিন্ন একটি নির্মাতার নতুন ফোনের সুবাদে ফাও প্রচারণা জুটেছে তাদের মোবাইল ফোনের।

এই ডামাডোলের এক ফাঁকে পাঠক চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন দুষ্ট ছেলের দল যে ছোট্ট একটি অ্যানিমেটেড ক্লিপ বানিয়েছে সেখানে।

খেয়াল করলে দেখা যায় জ্যাক টং কথা বলেছেন প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে। সেটের ‘লুক অ্যান্ড ফিল’ নিয়ে তিনি টু শব্দটি করেননি। আর বিশেষ করে আলোচিত দুই সেটের তুলনা তো দূরের বিষয়। তবে আমরা বরং এখানে সিদ্ধান্ত না দেই। তার চেয়ে বিভিন্ন সাইটে প্রকাশিত দুটি সেটের পাশাপাশি চিত্র থেকে পাঠকরা নিজেরাই সিদ্ধান্ত নিন কার দাবি সঠিক।

সবশেষে একটু বাড়তি তথ্য যোগ করা যাক। ইতিহাস বলে, এইচটিসি একসময় আক্ষরিক অর্থেই আইফোন তৈরি করত। ২০০৭ সালে বাজারে আসা প্রথম আইফোন, যা আইফোন টু জি বা অরিজিনিয়াল আইফোন নামে পরিচিত সেটি তৈরি হয়েছিল এইচটিসির কারখানাতেই! বিডিনিউজ

ঢাকা, রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এম এস এই লেখাটি ১৫৩২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন