সর্বশেষ
শুক্রবার ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৬ নভেম্বর ২০১৮

চার হাজার ডলারে মুক্তি পেয়েছিলেন ওয়াসফিয়া!

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৫

583241043_1448526496.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
১৮ নভেম্বর সকাল ১০টা ১৯ মিনিটে ইন্দোনেশিয়ার পাপুয়া অঞ্চল দিয়ে কারস্তনেজ পিরামিড জয় করেন ওয়াসফিয়া নাজরীন। তবে এ অভিযানে পদে পদে তাকে বিপদে পড়তে হয়েছে বলে বিবিসি বাংলাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে উল্লেখ করেছেন তিনি। তার ভাষায়, ‘বিশ্বাস করুন, আর নাই করুন, কারস্তনেজ পিরামিড আমার জীবনে সবচেয়ে কঠিন ও দুর্গম পাহাড়। এভারেস্টের চেয়েও।’

অস্ট্রেলিয়ার (ওশেনিয়া) সর্বোচ্চ শৃঙ্গ কারস্তনেজ পিরামিড জয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের প্রথম পর্বতারোহী হিসেবে সাত মহাদেশের সাত সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ জয় করেন ওয়াসফিয়া। শৃঙ্গটি জয় করতে গিয়ে তাকে মুখোমুখি হতে হয়েছে ভয়ংকর এক অভিজ্ঞতার। এ বিষয়ে বিবিসি বাংলাকে তিনি বলেন, জয়ের পর নেমে আসার পথে পর্বতের পাদদেশে থাকা বাসিন্দারা তাকে ও তার সহযোগীদের আটক করে। সালিসের পর চার হাজার ডলার দিয়ে মুক্তি মেলে তাদের।

এই শৃঙ্গটি জয় করতে গিয়ে সম্মুখীন হওয়া বিপদ সম্পর্কে ওয়াসফিয়া বলেন, তিনি যে ফিরে আসতে পারবেন, তা কল্পনাও করতে পারেননি। ১৬ হাজার ২৪ ফুট উচ্চতার কারস্তনেজ পিরামিডের স্থানীয় নাম পুনাক জায়া। পুরো পাহাড়টি গ্রানাইট পাথরের। একটি চূড়া থেকে অন্য চূড়ায় যেতে হয় দড়ির ওপর দিয়ে হেঁটে। গ্রামের পর গ্রাম পার হয়ে এবং ২২০ কিলোমিটার পথ হেঁটে এই পর্বতের বেসক্যাম্পে যেতে হয়। পর্বতের এক দিকে সোনার খনি থাকায় সেখানে মার্কিন ও অস্ট্রেলিয়ান মাফিয়াদের আনাগোনা। আরেক দিকে, স্থানীয় বিভিন্ন জাতি-গোষ্ঠীর মধ্যে তির-ধনুকের মারামারি।

কারস্তনেজ পিরামিড জয়ের পর পাহাড়ের বেসক্যাম্পে পৌঁছানোর পথে বিভিন্ন জাতি-গোষ্ঠীর সঙ্গে দেখা হয় তাদের। এদের মধ্যে আছে নানা ধরনের কুসংস্কার, যা অন্যের ক্ষতির কারণ হয়ে ওঠে। এমন ক্ষতির মুখোমুখি হয়েছিলেন ওয়াসফিয়াও। তিনি জানান, পর্বতারোহণ শেষে তিনি যখন ফিরছিলেন, তখন একটি গ্রামে এক বৃদ্ধ মারা যান। সে জন্য দায়ী করা হয় তাকে ও তার সহযোগীদের। কারণ, ওই গ্রামের লোকজন বিশ্বাস করে বিদেশিদের আগমনের কারণেই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। এ কারণে তাদের ধরে নিয়ে যায় গ্রামবাসী। চার ঘণ্টা সালিস হয়। শেষ পর্যন্ত চার হাজার ডলার দিয়ে তারা সেখান থেকে মুক্তি পান।

বাংলাদেশ অন সেভেন সামিট কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২০১১ সালে ওয়াসফিয়া তার সেভেন সামিট অভিযান শুরু করেন। ২০১২ সালে তিনি পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট জয় করেন।

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // আর কে এই লেখাটি ২০৬৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন