সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

'এবার বাবা-মায়ের সিদ্ধান্তেই বিয়ে করবো'

শুক্রবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৫

968305875_1449844037.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
নাচ ও অভিনয়। এই দুই ক্ষেত্রেই বিচরণ জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী ও অভিনেত্রী নাদিয়ার। অবশ্য এ মুহূর্তে অভিনয়ে বেশি ব্যস্ত থাকতে দেখা যায় তাকে। বর্তমান ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে একটি দৈনিকের সাথে কথা বলেছেন তিনি। নিচে সাক্ষাৎকারটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

কেমন আছেন? কেমন চলছে সব?
খুবই ভালো আছি। তবে বিশ্রাম নেই। কাজের এতই চাপ যে কারও ফোন রিসিভ করার সময়টা পাচ্ছি না। বিশেষ করে চলতি মাসটার কথাই বলি। কোনো ছুটি নেই। টাইট শিডিউল। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত শুটিং চলছে।

এখন কি নিয়ে ব্যস্ত আছেন?
এ মুহুর্তে ধারাবাহিকের কাজই বেশি চলছে। নতুন কয়েকটি নাটকে অভিনয় করছি। এগুলো হলো- এসএ হক অলিকের পরিচালনায় ‘আয়না ঘর’, হুমায়ুন ফরিদের ‘পাগলা হাওয়ার দিন’। এছাড়া সকাল আহমেদের একটি নতুন ধারাবাহিকের শুটিং শুরু হবে।

‘লড়াই’ ও ‘সম্রাট’ নাটক দুটি প্রচারে এসেছে। কেমন সাড়া পাচ্ছেন?
এগুলোর শুটিং নিয়েই ব্যস্ততা চলছে। সৈয়দ শাকিলের ‘সম্রাট’ এনটিভিতে প্রচার শুরু হয়েছে। এর শুটিং কাজ চলবে এ মাসের ১৮ তারিখ পর্যন্ত। গত কয়েকদিন আগেই নাটকটি প্রচারে এলো। ভালো সাড়া পাচ্ছি। এছাড়া আল হাজেনের ‘লড়াই’ নাটকটি থেকেও বেশ ভালো রেসপন্স মিলছে। সবমিলিয়ে ভালোই লাগছে বলতে পারেন।

প্রচার চলছে আর কোনগুলো?
নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের পরিচালনায় ‘বাক্সবন্দী’ নাটকটি এনটিভিতে প্রচার শুরু হয়েছে মাসখানেক হলো। এছাড়া এটিএন বাংলায় ফজলুর রহমানের ‘জীবনের অলি গলি’ ও সবুর খানের ‘দাগ’ নাটক দুটি প্রচার হচ্ছে। পাশাপাশি ‘কমেডি অ্যাট কলোনি’, ‘পরণ কথা’, ‘গন্তব্য নিরুদ্দেশ’, ‘উত্তর পুরুষ’ ধারাবাহিকগুলো তো চলছেই।

খ- নাটকের কাজ কি করছেন?
কয়েকদিন আগে বিজয় দিবস উপলক্ষে একটি নাটকের কাজ শেষ করেছি। আর জাহিদ হাসানের সঙ্গে একটি নাটকে অভিনয় করার কথা রয়েছে। এর মধ্যে আাপাতত আর কোনো নাটকের কাজ হাতে নেই।

নাচের ব্যস্ততা কেমন চলছে?
কয়েকটি স্টেজ শো হাতে রয়েছে। সেগুলোর কাজ করবো। পাশাপাশি আমার স্কুল ভিকারুন্নিসার রি-ইউনিয়ন এই মাসের ২৬ তারিখ। এবার বড় করে আয়োজন হচ্ছে। সেখানে পারফর্ম করবো।

টিভি চ্যানেলে এখন আপনার নাচ তেমন দেখা যায় না। এর কারণ কি?
আসলে টিভি চ্যানেলের নৃত্যানুষ্ঠানে মূলধারার নৃত্যশিল্পীদের নিয়ে আয়োজন খুব কম করা হয়। আর সে কারণে এ জায়গাটি নিয়ে খুব একটা আগ্রহ কাজ করে না বললেই চলে। এ নিয়ে অনেক আগে থেকেই খুব আপসেট। ছোটবেলা থেকে শিখে আসা নাচ। এখন সেটার বেহাল। দর্শক প্রকৃত নাচের শিল্পীদের দেখতে পারছেন না। এখন টিভিতে বিশেষ দিন ছাড়া তেমন নাচের অনুষ্ঠান প্রচার হয় না বললেই চলে। সবমিলিয়ে বলবো প্রকৃত নাচের শিল্পীরা এখন বঞ্চিত হচ্ছেন।

বর্তমান সময়ের নাটক নিয়ে মূল্যায়ন কি?
চ্যানেল সংখ্যা বেড়েছে। কাজের সংখ্যাও বেড়েছে সেই সঙ্গে। কাজের মান নিয়ে তো সে ক্ষেত্রে প্রশ্ন আসবেই। ভাল নাটক যেমন আছে, খারাপ কাজও হচ্ছে। এই অবস্থার মধ্য দিয়েই চলছে। তবে একটু অস্থিরতার মধ্যে যাচ্ছে বলে মনে করি আমি। অস্থিরতা বলবো এই কারণে যে, অনেক প্রকৃত শিল্পীর কাজ কমে যাচ্ছে। অযোগ্য লোকেরা কাজ করতে পারছেন। যে কারণে নানা সমস্যা তৈরি হচ্ছে। আর অনেক সময় শিল্পী নির্বাচনের জন্য নির্মাতার পরিবর্তে এজেন্সি কিংবা চ্যানেলের একটা প্রভাব থাকে।

ধারাবাহিক নাটকে ধারাবাহিতা থাকছে না। এ ব্যাপারে আপনার মত কি?
কাজ অনেক বেশি হচ্ছে বলে শিল্পীদের সিডিউল নিয়ে ঝামেলা হয়। যে কারণে গল্প যেভাবে যাওয়ার কথা সেভাবে যায় না। আরেকটা সত্যি কথা- ভাল গল্পের বড় অভাব। আর যারা লিখছেন তারাও অনেক সময় বেশি লিখতে গিয়ে ভালটা দিতে পারছেন না। এছাড়া বিজ্ঞাপনের একটা ঝামেলা তো রয়েছেই। নাটকের মাঝে বিজ্ঞাপন প্রচার শুরু হলে আর শেষ হয় না। কিংবা একটি নাটক কখন শুরু হবে সেই নির্দিষ্ট সময় ঠিক করা থাকে না। আমরা অন্য দেশের সিরিয়াল দেখে ঘড়ির সময় মেলাতে পারি। কিন্তু আমাদের দেশে সেটা কখনো সম্ভব নয়। সত্যিকার অর্থে আমরা শিল্পীরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি দর্শক ফেরানোর জন্য।

এসব সমস্যার পেছনে অনেকে বাজেট স্বল্পতাকে দায়ী করেন ?
বাজেট সমস্যা তো রয়েছেই। তবে বাজেটের দোহাই দিয়ে স্বল্প মূল্যে একটি স্ক্রীপ্ট দাঁড় করিয়ে দেয় অনেকে। এটা একটা সমস্যা। আবার অনেক সময় দেখা যায় রাইটার স্ক্রীপ্ট দিচ্ছেন না। সেক্ষেত্রে নির্মাতারা নিজেরাই গল্পটা লিখে টেনে লম্বা করছেন। ফলে কোয়ালিটি থাকছে না।

ব্যক্তিজীবন কেমন কাটছে?
আলহামদুলিল্লাহ। অনেক ভালো আছি। নিজেকে ভালো রাখার জন্য সব সময় কাজের মধ্যে ব্যস্ত রাখি। আমি মনে করি এটাই একটা বড় পন্থা। আর তাছাড়া আমি বরাবরই পজিটিভ মনোভাবের। কোনো কিছুই নেগেটিভলি দেখি না। যে কারণে ভালো থাকাটা আমার জন্য আরও সহজ হয়ে ওঠে।

নতুন করে বিয়ের ব্যাপারে কিছু ভাবছেন?
এ বিষয়ে আপাতত কোনো ভাবনা নেই। নাটকের কাজ চলছে। সেটা নিয়ে ব্যস্ত আছি। এসব ভাববার সময়টা তো থাকতে হবে। আর এবার যদি বিয়ে করি তবে সেটা পরিবারের পছন্দেই করবো। সেজন্য এবার বাবা-মায়ের ওপরই দায়িত্বটা ছেড়ে দিয়েছি।

সূত্র: মানবজমিন

ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ৪৬৬৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন