সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ বছরের সেরা ১০টি স্মার্টফোন

শুক্রবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৫

884623856_1449844707.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
এ বছরের সেরা ১০ স্মার্টফোনের তালিকা করে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যের দ্য টেলিগ্রাফ অনলাইন। এই তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে স্যামসাং, অ্যাপল, এলজি, এইচটিসি, ব্ল্যাকবেরি, সনি, হুয়াই ও মাইক্রোসফট ব্র্যান্ডের ১০টি স্মার্টফোন।

১. শীর্ষে আইফোন ৬ এস
নতুন আইফোন ৬ এস সম্পর্কে টিম কুক বলেন, 'বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত স্মার্টফোন'। এই স্মার্টফোনে রয়েছে অ্যাপলের আইওএস ৯ অপারেটিং সিস্টেম। ফোরকে মানের ভিডিও ধারণ করার জন্য এই ফোনের পেছনে উন্নত আই-সাইট ক্যামেরা যুক্ত করেছে অ্যাপল। ফোরকে ডিসপ্লেতে রেজুলেশন থাকে ৩৮৪০ বাই ২১৬০ যাতে পিক্সেল ঘনত্ব হয় ইঞ্চি প্রতি ৮০৬।

গত বছরে বাজারে আসা আইফোন ৬ এ আট মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা থাকলেও নতুন আইফোনের পেছনে ১২ মেগাপিক্সেল ও সামনে পাঁচ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা যুক্ত হয়েছে। লাইভ ফটোজ নামের নতুন একটি ফিচারও যুক্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আইওএস ৯ এ ফিচার হিসেবে রয়েছে ডিজিটাল সহকারী সিরির উন্নত সংস্করণ। এমনকি এটি ব্যাটারির চার্জ বাড়তি এক ঘণ্টা পর্যন্ত বাঁচাতে পারে। ১৬ জিবি, ৬৪ জিবি ও ১২৮ জিবি এই তিনটি সংস্করণে বাজারে এসেছে নতুন আইফোন। যুক্তরাজ্যের বাজারে ৬ এসের দাম যথাক্রমে ৫৩৯, ৬১৯ ও ৬৯৯ পাউন্ড।

২. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৬ এজ
গ্যালাক্সি এস ৬ এজ স্মার্টফোনটি বিশ্বের প্রথম দুই দিকে বাঁকানো ডিসপ্লেযুক্ত স্মার্টফোন। ১৩২ গ্রাম ওজনের এই বিশেষ নকশার ফোনটিতে বেশ কিছু দরকারি ফিচার রয়েছে। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট পকেট-লিন্ট ২০১৫ সালের সেরা প্রযুক্তিপণ্যের যে তালিকা করেছে, তাতে বর্ষসেরা স্মার্টফোনের খেতাব জিতেছে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এস ৬ এজ। ৫ দশমিক এক ইঞ্চি মাপের ডিসপ্লেযুক্ত স্মার্টফোনটির ওজন ১৩৮ গ্রাম। ৩ জিবি র‍্যামের ফোনটিতে কোয়াড কোর প্রসেসর রয়েছে। পেছনে ১৬ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে এতে। ৬৪ জিবি মডেলের দাম ৭৬০ পাউন্ড।

৩. এলজি জি ৪
টেলিগ্রাফের চোখে এ বছরে বাজারে তৃতীয় সেরা ফোন হচ্ছে এলজির জি ৪। সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের এই ফোনটির দাম ৫৯৯ মার্কিন ডলার। এই ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৫ দশমিক ১ বা ললিপপ ব্যবহারের সুবিধা। এর ওজন ১৫২ গ্রাম। আট দশমিক নয় মিলিমিটার পুরুত্বের স্মার্টফোনটির ব্যাটারি তিন হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের। এর পেছনে ১৬ ও সামনে আট মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। ফোনটিতে কোয়ালকমের হেক্সা কোর প্রসেসর ব্যবহৃত হয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির ফোন হিসেবেও এটি সেরা ১০টি ফোনের তালিকায় উঠে এসেছিল। এর দাম ৫০০ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৪. এইচটিসি ওয়ান এম ৯
অ্যান্ড্রয়েড প্রেমীদের কথা মাথায় রেখে এইচটিসি ওয়ান এম ৯ বাজারে ছাড়ে এইচটিসি। পাঁচ ইঞ্চি মাপের স্মার্টফোনটির ওজন ১৫৭ গ্রাম। তিন জিবি র‍্যামের ফোনটির পেছনে ২০ দশমিক সাত ও সামনে চার মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দাম ৫৮০ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৫. ব্ল্যাকবেরি প্রিভ
ব্ল্যাকবেরি এখনো টিকে আছে! অ্যান্ড্রয়েডচালিত প্রিভ নামের স্মার্টফোন বাজারে এনে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে কানাডার স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি। কোয়ার্টি কিবোর্ড ও টাচ স্ক্রিনের সমন্বয়ে অ্যান্ড্রয়েডচালিত ফোনটি সেরা ১০ স্মার্টফোনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। ৫ দশমিক চার ইঞ্চি মাপের ফোনটিতে তিন জিবি র‍্যাম রয়েছে। এর পেছনে ১৮ ও সামনে ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। এর দাম ৫৫৯ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৬. আইফোন ৬ এস প্লাস
আইফোনের ব্যাটারি সমস্যা নিয়ে অনেক অভিযোগ ছিল। কিন্তু বড় মাপের স্ক্রিনের চলের কথা মাথায় রেখে আইফোন ৬ এস প্লাসে এ সমস্যার সমাধান করেছে অ্যাপল। আইফোন ৬ এস ও ৬ এস প্লাসে বিশেষ তেমন পার্থক্য নেই। তবে সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের এই স্মার্টফোনটিতে দুই হাজার ৯১৫ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি একে বাড়তি সুবিধা দিয়েছে। এর ওজন ১৭২ গ্রাম। পেছনে ৮ ও সামনে এক দশমিক ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দাম ৬১৯ ব্রিটিশ পাউন্ড থেকে শুরু।

৭. সনি এক্সপেরিয়া জেড ৫ প্রিমিয়াম
পাঁচ দশমিক পাঁচ ইঞ্চি মাপের ডিসপ্লেযুক্ত সনির এই স্মার্টফোনটি ধূলা ও পানি প্রতিরোধী। ১৮০ গ্রাম ওজনের ফোনটিতে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর, তিন জিবি র‍্যাম রয়েছে। পেছনে ২৩ ও সামনে ৫ দশমিক এক মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে সনির ফোনটিতে। দাম ৬২৯ মার্কিন ডলার থেকে শুরু।

৮. হুয়াই নেক্সাস ৬ পি
এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে নেক্সাস ফোন হিসেবে পাঁচ দশমিক সাত ইঞ্চি মাপের ফ্যাবলেট হিসেবে হুয়াই নেক্সাস ৬ পির ঘোষণা দেয় গুগল। নেক্সাস ৬পি স্মার্টফোনটিতে অ্যামোলেড ডিসপ্লের পাশাপাশি রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সুবিধা। এতে আছে স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ প্রসেসর, তিন জিবি র‍্যাম। এর পেছনে ১২ দশমিক ৩ মেগাপিক্সেল ও সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। ধাতব কাঠামোর স্মার্টফোনটির পুরুত্ব ৭ দশমিক ৩৩ মিলিমিটার। ব্যাটারি ৩ হাজার ৪৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার। এতে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের সর্বশেষ সংস্করণ মার্সম্যালো প্রিলোড করা থাকে। ৬ পির দাম হবে ৪৯৯ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৯. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৬
স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৬ কে আসল অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন হিসেবে দাবি করে স্যামসাং। ২০১৫ সালের ১০ এপ্রিল বাজারে আসে স্যামসাংয়ের নতুন গ্যালাক্সি এস ৬। নতুন মডেলের স্মার্টফোন বাজারে আনতে ধাতব কাঠামো ব্যবহার করেছে স্যামসাং। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানের তৈরি ধাতব কাঠামোর স্মার্টফোনের চেয়ে তাদের স্মার্টফোন ৫০ শতাংশ বেশি টেকসই।

১০. মাইক্রোসফট লুমিয়া ৯৫০
উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম দিয়ে লুমিয়া ৯৫০ নামের একটি উইন্ডোজ ফোন উন্মুক্ত করেছে মাইক্রোসফট। ৫ দশমিক ২ ইঞ্চি মাপের এই ফোনটির ওজন ১৫০ গ্রাম। ৩ জিবি র‍্যামের ফোনটির স্টোরেজ ৩২ জিবি। কোয়ালকমের প্রসেসরযুক্ত ফোনটির পেছনে ২০ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দাম ৪৪৯ ব্রিটিশ পাউন্ড।
এ বছরের সেরা ১০টি স্মার্টফোন

 
এ বছরের সেরা ১০ স্মার্টফোনের তালিকা করে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যের দ্য টেলিগ্রাফ অনলাইন। এই তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে স্যামসাং, অ্যাপল, এলজি, এইচটিসি, ব্ল্যাকবেরি, সনি, হুয়াই ও মাইক্রোসফট ব্র্যান্ডের ১০টি স্মার্টফোন।

১. শীর্ষে আইফোন ৬ এস

নতুন আইফোন ৬ এস সম্পর্কে টিম কুক বলেন, 'বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত স্মার্টফোন'। এই স্মার্টফোনে রয়েছে অ্যাপলের আইওএস ৯ অপারেটিং সিস্টেম। ফোরকে মানের ভিডিও ধারণ করার জন্য এই ফোনের পেছনে উন্নত আই-সাইট ক্যামেরা যুক্ত করেছে অ্যাপল। ফোরকে ডিসপ্লেতে রেজুলেশন থাকে ৩৮৪০ বাই ২১৬০ যাতে পিক্সেল ঘনত্ব হয় ইঞ্চি প্রতি ৮০৬।

গত বছরে বাজারে আসা আইফোন ৬ এ আট মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা থাকলেও নতুন আইফোনের পেছনে ১২ মেগাপিক্সেল ও সামনে পাঁচ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা যুক্ত হয়েছে। লাইভ ফটোজ নামের নতুন একটি ফিচারও যুক্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আইওএস ৯ এ ফিচার হিসেবে রয়েছে ডিজিটাল সহকারী সিরির উন্নত সংস্করণ। এমনকি এটি ব্যাটারির চার্জ বাড়তি এক ঘণ্টা পর্যন্ত বাঁচাতে পারে। ১৬ জিবি, ৬৪ জিবি ও ১২৮ জিবি এই তিনটি সংস্করণে বাজারে এসেছে নতুন আইফোন। যুক্তরাজ্যের বাজারে ৬ এসের দাম যথাক্রমে ৫৩৯, ৬১৯ ও ৬৯৯ পাউন্ড।

২. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৬ এজ
গ্যালাক্সি এস ৬ এজ স্মার্টফোনটি বিশ্বের প্রথম দুই দিকে বাঁকানো ডিসপ্লেযুক্ত স্মার্টফোন। ১৩২ গ্রাম ওজনের এই বিশেষ নকশার ফোনটিতে বেশ কিছু দরকারি ফিচার রয়েছে। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট পকেট-লিন্ট ২০১৫ সালের সেরা প্রযুক্তিপণ্যের যে তালিকা করেছে, তাতে বর্ষসেরা স্মার্টফোনের খেতাব জিতেছে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এস ৬ এজ। ৫ দশমিক এক ইঞ্চি মাপের ডিসপ্লেযুক্ত স্মার্টফোনটির ওজন ১৩৮ গ্রাম। ৩ জিবি র‍্যামের ফোনটিতে কোয়াড কোর প্রসেসর রয়েছে। পেছনে ১৬ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে এতে। ৬৪ জিবি মডেলের দাম ৭৬০ পাউন্ড।

৩. এলজি জি ৪
টেলিগ্রাফের চোখে এ বছরে বাজারে তৃতীয় সেরা ফোন হচ্ছে এলজির জি ৪। সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের এই ফোনটির দাম ৫৯৯ মার্কিন ডলার। এই ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৫ দশমিক ১ বা ললিপপ ব্যবহারের সুবিধা। এর ওজন ১৫২ গ্রাম। আট দশমিক নয় মিলিমিটার পুরুত্বের স্মার্টফোনটির ব্যাটারি তিন হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের। এর পেছনে ১৬ ও সামনে আট মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। ফোনটিতে কোয়ালকমের হেক্সা কোর প্রসেসর ব্যবহৃত হয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির ফোন হিসেবেও এটি সেরা ১০টি ফোনের তালিকায় উঠে এসেছিল। এর দাম ৫০০ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৪. এইচটিসি ওয়ান এম ৯
অ্যান্ড্রয়েড প্রেমীদের কথা মাথায় রেখে এইচটিসি ওয়ান এম ৯ বাজারে ছাড়ে এইচটিসি। পাঁচ ইঞ্চি মাপের স্মার্টফোনটির ওজন ১৫৭ গ্রাম। তিন জিবি র‍্যামের ফোনটির পেছনে ২০ দশমিক সাত ও সামনে চার মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দাম ৫৮০ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৫. ব্ল্যাকবেরি প্রিভ
ব্ল্যাকবেরি এখনো টিকে আছে! অ্যান্ড্রয়েডচালিত প্রিভ নামের স্মার্টফোন বাজারে এনে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে কানাডার স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি। কোয়ার্টি কিবোর্ড ও টাচ স্ক্রিনের সমন্বয়ে অ্যান্ড্রয়েডচালিত ফোনটি সেরা ১০ স্মার্টফোনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। ৫ দশমিক চার ইঞ্চি মাপের ফোনটিতে তিন জিবি র‍্যাম রয়েছে। এর পেছনে ১৮ ও সামনে ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। এর দাম ৫৫৯ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৬. আইফোন ৬ এস প্লাস
আইফোনের ব্যাটারি সমস্যা নিয়ে অনেক অভিযোগ ছিল। কিন্তু বড় মাপের স্ক্রিনের চলের কথা মাথায় রেখে আইফোন ৬ এস প্লাসে এ সমস্যার সমাধান করেছে অ্যাপল। আইফোন ৬ এস ও ৬ এস প্লাসে বিশেষ তেমন পার্থক্য নেই। তবে সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের এই স্মার্টফোনটিতে দুই হাজার ৯১৫ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি একে বাড়তি সুবিধা দিয়েছে। এর ওজন ১৭২ গ্রাম। পেছনে ৮ ও সামনে এক দশমিক ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দাম ৬১৯ ব্রিটিশ পাউন্ড থেকে শুরু।

৭. সনি এক্সপেরিয়া জেড ৫ প্রিমিয়াম
পাঁচ দশমিক পাঁচ ইঞ্চি মাপের ডিসপ্লেযুক্ত সনির এই স্মার্টফোনটি ধূলা ও পানি প্রতিরোধী। ১৮০ গ্রাম ওজনের ফোনটিতে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর, তিন জিবি র‍্যাম রয়েছে। পেছনে ২৩ ও সামনে ৫ দশমিক এক মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে সনির ফোনটিতে। দাম ৬২৯ মার্কিন ডলার থেকে শুরু।

৮. হুয়াই নেক্সাস ৬ পি
এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে নেক্সাস ফোন হিসেবে পাঁচ দশমিক সাত ইঞ্চি মাপের ফ্যাবলেট হিসেবে হুয়াই নেক্সাস ৬ পির ঘোষণা দেয় গুগল।
নেক্সাস ৬পি স্মার্টফোনটিতে অ্যামোলেড ডিসপ্লের পাশাপাশি রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সুবিধা। এতে আছে স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ প্রসেসর, তিন জিবি র‍্যাম। এর পেছনে ১২ দশমিক ৩ মেগাপিক্সেল ও সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। ধাতব কাঠামোর স্মার্টফোনটির পুরুত্ব ৭ দশমিক ৩৩ মিলিমিটার। ব্যাটারি ৩ হাজার ৪৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার। এতে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের সর্বশেষ সংস্করণ মার্সম্যালো প্রিলোড করা থাকে। ৬ পির দাম হবে ৪৯৯ ব্রিটিশ পাউন্ড।

৯. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৬
স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৬ কে আসল অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন হিসেবে দাবি করে স্যামসাং। ২০১৫ সালের ১০ এপ্রিল বাজারে আসে স্যামসাংয়ের নতুন গ্যালাক্সি এস ৬। নতুন মডেলের স্মার্টফোন বাজারে আনতে ধাতব কাঠামো ব্যবহার করেছে স্যামসাং। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানের তৈরি ধাতব কাঠামোর স্মার্টফোনের চেয়ে তাদের স্মার্টফোন ৫০ শতাংশ বেশি টেকসই।

১০. মাইক্রোসফট লুমিয়া ৯৫০
উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম দিয়ে লুমিয়া ৯৫০ নামের একটি উইন্ডোজ ফোন উন্মুক্ত করেছে মাইক্রোসফট। ৫ দশমিক ২ ইঞ্চি মাপের এই ফোনটির ওজন ১৫০ গ্রাম। ৩ জিবি র‍্যামের ফোনটির স্টোরেজ ৩২ জিবি। কোয়ালকমের প্রসেসরযুক্ত ফোনটির পেছনে ২০ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দাম ৪৪৯ ব্রিটিশ পাউন্ড।

ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৪৬৪৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন