সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ঘর ভাঙছে বাপ্পা-চাঁদনীর!

শনিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৫

767688455_1449913552.jpg
বিনোদন রিপোর্ট :
শিমুল-নাদিয়ার পর ঘর ভাঙার তালিকায় এবার যুক্ত হতে যাচ্ছে বাপ্পা-চাঁদনী দম্পতি। যে কোনো দিন তাদের দাম্পত্য জীবনের ইতি ঘটে যেতে পারে। তাদের সমসাময়িক আচরণ অন্তত তা-ই প্রমাণ করছে।

দুজনেরই বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনই তারা দাম্পত্য কলহে লিপ্ত হচ্ছেন। মাঝেই মাঝেই চাঁদনী বাপ্পার সঙ্গে রাগ করে মায়ের বাসায় চলে যান। আবার বাপ্পা বুঝিয়ে-শুনিয়ে নিয়ে আসেন।

পরস্পরের মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি ও সন্দেহপ্রবণতাই এর কারণ বলে জানিয়েছে সূত্রটি। জানা গেছে বিয়ের পর থেকেই বাপ্পা ও চাঁদনীর সম্পর্কটা ভালো যাচ্ছে না। নানা বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হয়। ব্যাক্তি বাপ্পা ও তার পেশার প্রতি চাঁদনীর কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই।

বাপ্পার আত্মীয়-স্বজনরা মনে করেন, চাঁদনী বাপ্পাকে নয়, তার তুমুল খ্যাতিকেই ভালোবেসেছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক আত্মীয় বিডিলাইভকে বলেন, ‘শুনেছি চাঁদনী অন্যকারো সঙ্গে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেছেন। এটা বাপ্পাকে অনেক কষ্ট দেয়। ফলে দিন দিন তাদের দূরত্ব আরো বাড়তে থাকে। এরইমধ্যে দুই পরিবার বসে বিষয়টি সমাধানে একাধিকবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন।’

এদিকে আরেকটি সূত্রে জানা যায়, চাঁদনী নতুন করে প্রেমে মজেছেন। অভিনেত্রী তাজিনের দ্বিতীয় স্বামী রুমীর সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় তাকে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে। চাঁদনীর ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানায়, চাঁদনী নিজের জীবন নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করেছেন। বাপ্পার সঙ্গে তিনি আর সংসার করতে চান না। আর তাই যে কোনো সময় তাদের ঘর ভেঙে যেতে পারে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাপ্পা ও চাঁদনী দু'জনের কেউই কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

২০০৮ সালের ২১ মার্চ ধানমন্ডির ২৭ সিয়ার্স রেস্টুরেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে বাপ্পা মজুমদার ও চাঁদনীর বাগদান হয়। বাপ্পা ও চাঁদনী ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের হলেও বাগদানের আগেই বাপ্পা ধর্মান্তরিত হয়ে আহমেদ বাপ্পা মজুমদার হন। দুই পরিবারের সম্মতিতেই এই বাগদান সম্পন্ন হয়। পরে তাদের দুই পরিবার একসাথ হয়ে ঘরোয়াভাবে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন।


ঢাকা, শনিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // আর কে এই লেখাটি ১৭৯৩৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন