সর্বশেষ
শনিবার ৭ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সৌর-সাইকেল বানালো কিশোর বিজ্ঞানী

সোমবার, ডিসেম্বর ২১, ২০১৫

1558543014_1450691528.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
পোশাকি নাম ইকো সোলার বাইসাইকেল, সংক্ষেপে এএসবি। অহনের তৈরি সাইকেলের বিশেষত্ব এই যে, তা শৌরশক্তি তো বটেই, বিকল্প হিসেবে ব্যাটারিতেও চলে। এমনকি যে কোনো সাধারণ সাইকেলের মতো প্যাডেলের সাহায্যেও চালানো যায় এই দু'চাকার যান।

মাত্র ৪ মাসে সৌরশক্তি চালিত সাইকেল বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে ভারতের মুম্বাইয়ের সতেরো বছরের অহন পারেখ। নিজের আবিষ্কৃত ৫টি সাইকেল ইতোমধ্যেই মুম্বাইয়ের ডাব্বাওয়ালাদের উপহার দিয়েছে নবীন উদ্ভাবক।

জানা গেছে, স্বাভাবিক রোদ ঝলমলে দিনে সৌর প্যানেল চার্জ করতে সময় লাগে ৫-৬ ঘণ্টা। সাইকেল চালাতে চালাতেও চার্জ দেওয়া যায়। সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ২০ কিমি। অহন পারেখের এই প্রকল্পটি সর্বভারতীয় নেহরু সায়েন্স সেন্টার ইনোভেশন ফেস্টিভ্যালে মনোনীত হয়েছিল। এই প্রদর্শনীতে তাকে বিশেষ খেতাব প্রদান করা হয়।

কী ভাবে এমন অভিনব সাইকেল আবিষ্কারের আইডিয়া এল?

অহনের কথায়, 'গত বছর একটি সৌরশক্তি সংস্থার অধীনে ইন্টার্নশিপ করেছিলাম। রিনিউয়েবল এনার্জি সম্পর্কে অনলাইনেও কিছু পড়াশোনা করেছিলাম। রোজের জীবনে সৌরশক্তি ব্যবহারের চিন্তা তখনই করেছিলাম। এই সময়ই হঠাত্‍ সৌর সাইকেলের কথা মাথায় আসে। এ আমার নিজস্ব চিন্তা এবং প্রকল্প। পাঁচ মাসের ছুটি পেয়ে ২০১৪ সালের মে মাসে কাজ শুরু করি, চার মাসে প্রথম মডেলটি তৈরি হয়ে যায়। এর পর এক বছর ধরে তার ক্রমাগত উন্নতি সাধন হয়েছে।'

আবিষ্কারের পথে কোনও বাধার মুখোমুখি হতে হয়েছিল?

অহন জানিয়েছেন, 'সাইকেলের ডিজাইন ও বিভিন্ন অংশের যথাযথ কার্যকারিতা সম্পর্কে কিছু সমস্যা তৈরি হয়েছিল। প্রধান চ্যালেঞ্জ ছিল ওজন নিয়ে। তার সঙ্গে ব্যালান্স বজায় রাখার ব্যাপারেও সতর্ক থাকতে হয়েছে। আবার বিভিন্ন পার্টস সম্পর্কে যথাযথ বিবরণের অভাবও সমস্যায় ফেলেছিল।'

কাদের কাজে লাগবে অভিনব এই সাইকেল?

অহনের দাবি, 'হোম ডেলিভারি দেওয়ার কাজে যারা যুক্ত, তাদের জন্য সাইকেলটি অপরিহার্য হয়ে উঠবে। সংবাদপত্র বিক্রেতা, দুধ বিক্রেতা, ডাব্বাওয়ালা, লন্ড্রি ও বিভিন্ন রেস্তোরাঁর ডেলিভারি বয়দের জন্য তা উপযুক্ত। মোটরবাইক বা মোপেডের বদলে সাইকেলে পণ্য পৌঁছে দেওয়া রপ্ত করলে পরিবেষ দূষণের হারও কমবে। বাজারলব্ধ সাধারণ পার্টস ব্যবহার করার ফলে সাইকেলের দাম সাধারণের আয়ত্তের মধ্যে থাকবে।'

দ্য ক্যাথিড্রাল অ্যান্ড জন ক্যানন স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র অহন উচ্চশিক্ষার জন্য ব্রিটেন যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এইসময়

ঢাকা, সোমবার, ডিসেম্বর ২১, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ১৩৫৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন