সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৯শে কার্তিক ১৪২৫ | ১৩ নভেম্বর ২০১৮

শিগগিরই মানচিত্র থেকে নিশ্চিহ্ন হবে যে দেশ

শনিবার, জানুয়ারী ২, ২০১৬

1644801788_1451743580.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
জীবাশ্মজনিত জ্বালানির ব্যাপক ব্যবহারের ফলে পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমান দ্রুত বেড়ে চলেছে। এই বৃদ্ধির ফলে বিশ্বের তাপমাত্রাও বেড়ে চলেছে। ফলে অনাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টি, বন্যা, খরা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। তবে সব থেকে বেশি চিন্তার বিষয় হলো বিশ্বের তাপমাত্রা বাড়ার সাথে সাথে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতাও দ্রুত বৃদ্ধি হচ্ছে।

এর জন্য বিশ্বের অনেক দেশই এখন ধ্বংসের সম্মুখীন। যদি একই হারে জল বড়াতে থাকে, তবে মাত্র কয়েক বছরের মধ্যেই পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে একটি দেশ। যার নাম তুভালু।

মাত্র ২৬ বর্গ কিলোমিটার জায়গা নিয়ে তৈরি দেশে ১১ হাজার মানুষ বসবাস করেন। অস্ট্রেলিয়ার কাছে রয়েছে বলে এ দেশে অস্ট্রেলিয়ান ডলার চলে। তার সঙ্গে তুভালু-র নিজস্ব ডলার রয়েছে। প্রধান ভাষা তুভালুয়ান এবং ইংরেজি।

বিশ্বের চতুর্থ ক্ষুদ্রতম দেশ তুভালু। ১৯৭৮ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে মুক্তি পেয়েছে। তবে ১৯৯৩ সালের পর থেকে সমুদ্র পৃষ্ঠের বাড়বাড়ন্তের জন্য প্রতিবছর একটু করে জমি হারাচ্ছে তুভালু। এ নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জের কাছে দরবারও করেছেন প্রধানমন্ত্রী এনেল সোপোয়াগা। চলতি মাসে পরিবেশ সম্মেলনে তুভালুকে বাঁচাতে সব দেশই যথাসাধ্য চেষ্টা করবে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জ।

গ্রিন হাউজ গ্যাস নির্গমনের পরিমান না কমালে এবং বনাঞ্চল রক্ষায় ব্রতী না হলে শুধু তুভালু নয়, বিশ্বের বহু দেশ আগামী এক দশকের মধ্যে ধ্বংসের দোড়গোড়ায় পৌঁছে যাবে। তার মধ্যে আমেরিকা, ইউরোপ এবং এশিয়ার বহু দেশও রয়েছে।

ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ২, ২০১৬ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ২৫২৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন