সর্বশেষ
মঙ্গলবার ৬ই ফাল্গুন ১৪২৬ | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মঙ্গল গ্রহের চিহ্নিত রেখাগুলি পানির নয় : নাসা

সোমবার, আগস্ট ১, ২০১৬

2108607204_1470032792.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
মঙ্গল গ্রহের ‘গালি’ এলাকাগুলোতে যে দাগগুলি রয়েছে বা এখনও গজিয়ে উঠছে, খুব সম্ভবত সেগুলি পানির স্রোতের জন্য তৈরি হয়নি। নাসার মহাকাশযান ‘মার্স রিকনাইসেন্স অরবিটার’ (এমআরও)-এর পাঠানো তথ্যাদি তেমনটাই জানাচ্ছে।

এর আগে বিজ্ঞানীদের ধারণা ছিল, পানির স্রোতের জন্যই ওই দাগগুলি তৈরি হয়েছে। কার্বন ডাই-অক্সাইডের বরফই ওই ‘গালি’ এলাকগুলো বানাতে পারে বলে বিজ্ঞানীদের অনুমান।

কোন কোন অঞ্চলগুলিকে মঙ্গলের ‘গালি’ এলাকা বলা হয় তার ব্যাখ্যায় বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন মঙ্গলের পিঠে যেসব এলাকায় একই সঙ্গে তিন রকমের গঠন দেখা যায়, সেই সব এলাকাগুলিকেই বলা হয় ‘গালি’।

ওই এলাকাগুলির চেহারায় তিন রকমের বৈশিষ্ট্য রয়েছে। উপরের দিকে রয়েছে একটা চোরা কুঠুরি, কোনো তরল পদার্থ বয়ে যাওয়ার পথ (চ্যানেল) আর নীচে জমে রয়েছে থিতিয়ে পড়া পদার্থগুলি।

এই ‘গালি’ ছাড়াও মঙ্গলের পিঠে আরও এক ধরনের এলাকা রয়েছে, যেগুলিকে বলা হয় ‘স্ট্রিক্‌স’। মানে ডোরাকাটা বা আঁকাবাঁকা দাগ। ওই ‘স্ট্রিক্‌স’গুলোকে ‘রেকারিং স্লোপ লাইনি’ - ও বলা হয়। ওই ‘স্ট্রিক্‌স’গুলো মুলত ভিজা লবণ দিয়েই তৈরি হয়েছে। তার মানে কোনো এক সময় ওই ‘স্ট্রিক্‌স’ এলাকায় পানি বইয়ে যেত মঙ্গল গ্রহে।

কিন্তু ‘গালি’ এলাকার দাগগুলিকে যে পানির প্রবাহ-পথ বলে মনে করা হয়েছিল নাসার মহাকাশযান ‘এমআরও’-র পাঠানো তথ্যাদি তাকে সমর্থন করেনি। কার্বন ডাই-অক্সাইডের বরফই ওই ‘গালি’ এলাকার গঠনে বড় ভূমিকা নিয়েছে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন।

‘এমআরও’-র পাঠানো তথ্যাদির ভিত্তিতে গবেষণাটি চালিয়েছেন মেরিল্যান্ডে জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাপ্লায়েড ফিজিক্স ল্যাবরেটরির গবেষকরা।

ঢাকা, সোমবার, আগস্ট ১, ২০১৬ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ১৪৭৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন