সর্বশেষ
শনিবার ১লা পৌষ ১৪২৫ | ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

কারাগার থেকে গানে ফিরলেন মুজিব পরদেশী

সোমবার, জানুয়ারী ৪, ২০১৬

871004536_1451901984.jpg
বিনোদন রিপোর্ট :
‘আমি বন্দি কারগারে, আছি গো মা বিপদে/বাইরের আলো চোখে পড়ে না, আমি বন্দি কারাগারে...’ গানের শিল্পী মুজিব পরদেশী নিজের গানের কল্পনা থেকে এক সময় বাস্তবতায় উপলব্ধি করেন কারবাসের অভিজ্ঞতা। আশির দশকের সুপারহিট এই গানের শিল্পী মুজিব পরদেশী কারাভোগের পর আবার আসলেন গানের জগতে। কিন্তু তারপরও তাকে কারাগার যেন হাতছানি দিয়ে ডাকছে। একটি বিজ্ঞাপনচিত্রের জিঙ্গেলে কন্ঠ দেয়ার জন্য নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী তাকে খুঁজে বের করেন। ‘কলমে নাই কালি’ গানের জিঙ্গেলটির সঙ্গীতায়োজন করেছেন অর্ণব।

মুজিব পরদেশী যখন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে তখনই ঘটে ছন্দপতন। লন্ডনে গেলেন একটি শো করার জন্য। সেখানে গিয়ে আয়োজকদের পরামর্শে রয়ে গেলেন বেশ কিছুদিন। ৪ মাসের ভিজিট ভিসা শেষ হওয়ার পরেও আরও কিছুদিন রয়ে যান এবং একসময় দেশে ফিরে আসেন। লন্ডনে থাকাবস্থায় আদম পাচারের মাফিয়া চক্রের খপ্পরে পড়েন মুজিব পরদেশী। দেশে ফিরে এসে লন্ডনে লোক নিবেন বলে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা পয়সা নিয়ে নুরুল ইসলাম নামের পরিচিত এক ব্যক্তিকে দিলেন, যিনি ছিলেন বাংলাদেশে ঐ মাফিয়া চক্রের সদস্য। সব টাকা মেরে নুরুল ইসলাম আত্মগোপন করলে মুজিব পরদেশীর উপর পাওনাদারেরা টাকার চাপ দিতে থাকে। কিন্তু মুজিব পরদেশী সব টাকা তো না বুঝেই চক্রের হাতে তুলে দিয়েছিলেন। যার ফলে পাওনাদারেরা টাকা না পেয়ে মুজিব পরদেশীর নামে মামলা করলেন। মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলে গেলেন এবং একসময় জামিনে বের হয়ে এলেন। জামিনে বের হওয়ার পর থেকে আর কখনও মামলায় হাজিরা দেননি। সেই থেকে পলাতক হয়ে গেলেন আজ অবধি পলাতক রয়ে গেলেন। এইভাবেই একজন দুর্দান্ত শিল্পী হারিয়ে যেতে থাকেন ধীরে ধীরে।

আশির দশকের মধ্যভাগে বাংলাদেশের অডিও গানে মুজিব পরদেশী নামের এক শিল্পী এসে তোলপাড় করে দিল তার কণ্ঠের ফোঁক গান দিয়ে। সেই মুজিব পরদেশীকে আজকের প্রজন্ম পায়নি, তার সম্পর্কে অনেকেই জানে না। তার গান আজকের শ্রোতারা শুনেছেন, কিন্তু জানেন না যে গানটির মূল শিল্পী ছিলেন মুজিব পরদেশী নামের এক অখ্যাত নতুন শিল্পী। যিনি বাংলাদেশের সঙ্গীতে এসে রেকর্ড গড়লেন সর্বোচ্চ বিক্রিত অ্যালবাম দিয়ে। এখনও সেদিনের শ্রোতারা মুজিব পরদেশীর কথা ভুলতে পারেননি।

আজকের জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘বাংলা’র আনুশেহ ও অর্ণবের কণ্ঠে ‘তুই যে আমার মন’ গানটি শোনা যায়, সেই গানটির মূল শিল্পী ছিলেন মুজিব পরদেশী। যা ছিল তার ইতিহাস সৃষ্টি করা প্রথম অ্যালবাম ‘আমি বন্দি কারাগারে’র গান।

১৯৮৬ সালের কথা। গীতিকার হাসান মতিউর রহমান একজন শিল্পী খুঁজছেন যিনি পংকজ উদাসের মতো হারমোনিয়াম বাজিয়ে গজল গাইতে পারে এমন কাউকে। তখন মুজিব পরদেশী তার বাবার ফলের দোকানে কাজ করেন আর অবসরে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে গান করেন। এভাবে একদিন হাসান মতিউর রহমানও মুজিব পরদেশীর গান শুনলেন রাস্তায়। সেই শোনার পর থেকে মুজিব পরদেশীর কণ্ঠটি তার কানে বাজতে বাজতে থাকে। অনেক কষ্টে ঠিকানা যোগাড় করে হাসান মতিউর রহমান ওয়াইজ ঘাটে গেলেন মুজিবের বাবার ফলের দোকানে। হাসান মতিউর রহমান মুজিবুরকে ক্যাসেট বের করার প্রস্তাব দিলেন। প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে মুজিবুর রহমান মোল্লা একটি অডিও ক্যাসেট বের করতে এলেন। হাসান মতিউর রহমান মুজিবুর রহমান মোল্লা নামটির বদলে রাখলেন মুজিব, সাথে যোগ করলেন ‘পরদেশী’ শব্দটা। এভাবে হাসান মতিউর রহমানের হাতে জন্ম নিল একজন নতুন শিল্পী মুজিব পরদেশী।

১৯৮৬ সালের ২৮ ডিসেম্বর মাত্র পৌনে ২ ঘণ্টায় ১১টা গান রেকর্ড করে ফেললেন। যা পরবর্তীতে হয়ে যায় একটি ইতিহাস। পুরো অ্যালবাম তৈরি করতে খরচ হয়েছিল ১,৩৬০ টাকা। যা বিক্রি হয়েছিল ৬০ লাখ কপি (মূল কোম্পানির) আর নকল করে আরও প্রায় ২৫/৩০ লাখ কপি যা হয়ে গেলো অডিও ইন্ডাষ্ট্রির সর্বাধিক বিক্রিত ক্যাসেটের রেকর্ড।

বাংলাদেশের এমন কোনো শ্রোতা পাওয়া যায়নি তখন যার ঘরে এই অ্যালবামটি ছিল না। শহর, বন্দর, গ্রাম-গঞ্জের সবখানে মুজিব পরদেশীর ‘আমি বন্দি কারাগারে’ অ্যালবামটি বাজতে থাকলো। শুধু কি অডিও ক্যাসেটে? না, সেই অ্যালবামের ১১টি গান ১১টি চলচ্চিত্রে ব্যবহার হয়েছিল। তার মাঝে তোজাম্মেল হক বকুলের ‘বেদের মেয়ে জোছনা’ ছবিতে ‘আমি বন্দি কারাগারে’ গানটি এমনই হিট করলো যে ছবিটি হয়ে গেলো বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সবচেয়ে ব্যবসাসফল রেকর্ড গড়া ছবি। এভাবেই মুজিব পরদেশী হয়ে গেলেন ফোক গানে বাংলাদেশের শ্রোতাদের খুব জনপ্রিয় একটি নাম।

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি থানার বেতকা গ্রামের ইউসুফ আলী মোল্লার পুত্র মুজিব পরদেশী শৈশবেই সঙ্গীতে তালিম নেন ওস্তাদ গোলাম হায়দার আলী খান, ওস্তাদ ফজলুল হক, ওস্তাদ আমানুল্লা খানের নিকট। তবলায় হাতেখড়ি ওস্তাদ মনির হোসেন খান ও সাজ্জাদ হোসেন খানের সরাসরি তত্ত্বাবধানে দীর্ঘদিন গান করছেন লোকগীতির কিংবদন্তি আবদুল আলীমের সঙ্গে।

ঢাকা, সোমবার, জানুয়ারী ৪, ২০১৬ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ১৬৭১৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন