সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১৫ই ফাল্গুন ১৪২৬ | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সেতুর রেলিং ভেঙে পিকনিকের বাস খাদে, ৩৮ শিক্ষার্থী আহত

শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০

81.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কক্সবাজারের রামু উপজেলায় শিক্ষার্থীদের বহন করা একটি পিকনিকের বাস সেতুর রেলিং ভেঙে খাদে পড়ে অন্তত ৩৮ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক ৫ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আজ শনিবার ভোর ৬টায় মেরংলোয়া রামু ল্যাবরেটরি স্কুলের পাশে লম্বা ব্রিজ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পিকনিকে যাওয়ার জন্য ৩৮ জন শিক্ষার্থী ওই বাসে ঢাকা থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে রওনা হন। বাসটি রামু উপজেলার পুরাতন আরকান সড়কে লম্বা সেতু অতিক্রম করছিল। এ সময় একটি অটোরিকশাকে সাইড দিতে গিয়ে চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে বাসটি রেলিং ভেঙে খাদে পড়ে যায়। এতে বাসটিতে থাকা ৩৮ জন আহত হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত ৩৬ জনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের মো. শাহাজানের ছেলে আবির (২১), একই এলাকার নাছির উদ্দিনের ছেলে আতিক (২২), আবু বশরের ছেলে মোছাদ্দেক (২২), সাতক্ষীরা জেলার নুরুল আমিনের ছেলে সোহান (২২), বরগুনার আমতলীর জালাল উদ্দিনের ছেলে জাহিদ ইসলাম(২৩), একই এলাকার মোতাহের হোসাইনের ছেলে জিয়াউল করিম (২৭), ঢাকার আলতাফ হোসাইনের ছেলে নাজমুল হুসাইন (২৫), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের আব্দুর শুক্কুরের ছেলে গফুর (২৫), বরগুনা সদরের খলিলুল্লাহর ছেলে আল আমিন (২৬), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের রফিক উদ্দিনের ছেলে ইউনুচ (২৪), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের মোস্তফা গাজীর ছেলে তরিকুল ইসলাম (২৬), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের হাবিবুর রহমানের ছেলে আব্দুর রউফ (২৫), পটুয়াখালীর মোশারফ হোসাইনের ছেলে আবু মুছা (২৭), কুমিল্লার সুলতানপুরের সুলতান আহমেদের ছেলে মাহিম (২৭), পটুয়াখালীর আবু তৈয়ব সিকদারের ছেলে রাজিব (২৭), যশোরের মোশরাফ হোসাইনের ছেলে বকতিয়ার (২৫), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের জাকির হোসাইনের ছেলে মনজরুল হোসাইন সাকিব (১৯), ঢাকার নজরুল ইসলামের ছেলে জুয়েল (২৭), ঢাকার মির্জাপুর এলাকার আলতাফ হোসেনের ছেলে (১৯), নোমান (২৭), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের আব্দুল জাব্বারের ছেলে মেহেদী হোসাইন (২৫), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের কবির আহমদের ছেলে নয়ন (২৬), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের মোতাহের হোসাইনের ছেলে নাঈম হুসাইন (২২), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের আলতাফ হোসাইনের ছেলে ফয়সাল (২০), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মোশারফ হুসাইন (২৫), পটুয়াখালীর বাচ্চুর ছেলে সাইফুল ইসলাম বাপ্পী (৩০), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের শাহা জামালের ছেলে নিজাম (২৬), পটুয়াখালীর শ্রীনগর এলাকার মোছাদ্দেকের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৭), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের আশরাফ আলীর ছেলে হাসিব (১৯), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের আব্দুল মান্ননের ছেলে সজল (২৬), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের জাকির হোসাইনের ছেলে নজরুল হক সাকিব (১৯), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের নাহিদের ছেলে রহিম (২৬), শরীয়তপুরের আসাদ আলীর ছেলে আবু বক্কর সিদ্দীক (২৫) , পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের শহিদ ইসলামের ছেলে শফিক (২৪), বরিশালের শহিদুল ইসলামের ছেলে মোনাফ হুসেন সাঈদ (২৫) ও পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের বেলাল হোসাইনের ছেলে মোহাম্মদ (২৬)।

রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. ওয়ালিউর রহমান ও ডা. অনিক বড়ুয়া জানান, ভোর ৬টার দিকে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত প্রায় ৩৮ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে গুরুতর আহত ১৮ জনকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। তবে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।


ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৭৭৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন