সর্বশেষ
রবিবার ১৭ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ৩১ মে ২০২০

রোগীর করোনা সন্দেহের কথা জানিয়ে চাকরি হারালেন ডাক্তার

বুধবার, মার্চ ১১, ২০২০

india.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

রোগীর শরীরে করোনা ভাইরাস থাকতে পারে। এমন তথ্য একজন ডাক্তার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দিতেই পারেন। কিন্তু এ তথ্য দিয়েই চাকরি হারালেন ভারতের কেরালা রাজ্যের এক ডাক্তার। সম্প্রতি একটি বেসরকারি ক্লিনিকের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ করেন তিনি।

এই সময়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ডা. শিনু শ্যামলন নামে কেরালার ওই চিকিত্‍সক জানান- তিনি যে বেসরকারি ক্লিনিকে কাজ করতেন, দিন কয়েক আগে সেখানে তার কাছে সেবা নিতে আসেন এক ব্যক্তি। সর্দি-কাশি ও জ্বর নিয়ে আসা ওই ব্যক্তি সম্প্রতি কাতার থেকে ফিরেছেন বলে তাকে প্রশ্ন করে জানতে পারেন শিনু। তার এই বিদেশ সফরের বিষয়ে কোন রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে জানানো হয়নি বলেও জানান।

এরপর ওই ব্যক্তির বিষয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশে রিপোর্ট করেন ডা. শিনু শ্যামলন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সবাইকে সতর্ক করার চেষ্টা করেন তিনি। আর এই ‌‘অপরাধেই’ ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে বলে অভিযোগ ওঠে।

ডা. শিনু শ্যামলন বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করে- ‘তাদের হাসপাতালে করোনা ভাইরাস সন্দেহের রোগী এসেছিলেন জানতে পারলে অন্য কোনো রোগী আতঙ্কে আর হাসপাতালে আসবেন না।’ তাই সবাইকে সচেতন করার জন্য বিষয়টি জানালে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। এদিকে এখন পর্যন্ত ভারতে যতজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের বেশিরভাগই কেরালার বলে জানা গেছে।


ঢাকা, বুধবার, মার্চ ১১, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৬৭৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন