সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১৩ই আশ্বিন ১৪২৮ | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিধিনিষেধ চলবে, না মানলে সাজা: ম্যাক্রো

মঙ্গলবার, মার্চ ১৭, ২০২০

Capture.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

চীনের পর করোনাভাইরাসের সবচেয়ে বড় আঘাতের স্থান ইতালি। সেখানে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেড়ে ২০ হাজারেরও বেশি হয়েছে এবং মারা গেছে ১ হাজার ৮০০ জনের বেশি। গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। এখন বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা চীনের অভ্যন্তরে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যাকে ছাড়িয়ে গেছে। চীনের বাইরে ৮৭ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। চীনের অভ্যন্তরে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৮০ হাজারের মতো।

জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৭৪ হাজার মানুষ। মারা গেছে ৬ হাজার ৭০০ জনের বেশি।

বিবিসি অনলাইনের খবরে জানানো হয়, ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রো বলেন, আজ মঙ্গলবার থেকে ভ্রমণকারীদের প্রবেশ ঠেকাতে সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে ম্যাক্রো লোকজনকে বাড়িতে থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন। শুধু জরুরি প্রয়োজনেই বাইরে যেতে বলেছেন।

ম্যাক্রো বলেন, ‘আমরা একটি স্বাস্থ্য-যুদ্ধে আছি। স্কুল, ক্যাফে, জরুরি পণ্য বিক্রি করে না—এমন দোকান বন্ধের মতো আগের পদক্ষেপগুলো প্রমাণ করেছে এসব ব্যবস্থাই যথেষ্ট নয়।’ ১০ মিনিটের ভাষণে তিনি বলেন, যখন স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা পরিস্থিতির গুরুতর অবস্থা নিয়ে সতর্ক করেছেন, তখন দেখা যাচ্ছে লোকজন পার্কে একত্র হচ্ছেন, বাজারে, রেস্তোরাঁ, বারে ব্যস্ত থাকছেন, এসব বন্ধের নির্দেশের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করছেন না। ম্যাক্রো জানান, ১৫ দিনের জন্য বিধিনিষেধ কার্যকর থাকবে। নির্দেশ অমান্যকারী ব্যক্তিদের সাজা পেতে হবে।

জার্মানির বার্লিনের দোকানগুলোয় ক্রেতা কমে এসেছে। জার্মানির বার্লিনের দোকানগুলোয় ক্রেতা কমে এসেছে। ম্যাক্রো আরো জানান, হাসপাতালে অসুস্থ ব্যক্তিদের নেওয়ার জন্য সেনাসদস্যদের নামানো হবে। পরে ফ্রান্স সরকার জানিয়েছে, দেশজুড়ে অবরুদ্ধ ব্যবস্থা কার্যকরের জন্য এক লাখের বেশি কর্মকর্তাকে মোতায়েন করা হবে।


ঢাকা, মঙ্গলবার, মার্চ ১৭, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৯৯৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন