সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১৯শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ০২ জুন ২০২০

চিরিরবন্দরে করোনা মোকাবেলায় জনপ্রতিনিধিরা তৎপর নয়

সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০

man.jpg
মোহাম্মদ মানিক হোসেন, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি :

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে মরণব্যাধি কারোনা ভাইরাস সংকট মোকাবেলায় অধিকাংশ জনপ্রতিনিধিদের কাছে পাচ্ছে না এলাকার জনগণ। খাদ্যের অভাবে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের অনেক পরিবারে নীরব কান্নায় ডুবছে। জনপ্রতিনিধি এবং সমাজের বিত্তবানরাও যেন তাদের কান্না শুনতেই পাচ্ছে না।

জানা যায়, করোনা ভাইরাসে পুরো দেশ স্থবির হয়ে আছে। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বাংলাদেশও রয়েছে চরম ঝুঁকিতে। এ অবস্থায় অনেকেই এলাকা ছেড়ে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করছে। কৃষি নির্ভরশীল এই উপজেলায় দরিদ্র মানুষ চরম অর্থ সংকটের মধ্যে রয়েছে।

এদিকে, চিরিরবন্দরে ১২টি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের সদস্য , উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, মেম্বারসহ ১২৬ জনপ্রতিনিধি আছে। কিন্তু তারা এ সংকটময় সময়ে জনগণের পাশে নেই।

তবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যানবৃন্দ বিভিন্ন এলাকায় জীবাণুননাশক স্প্রে ,মাক্স ও লিফলেট বিতরন করতে দেখা গেছে। তবে অনুসারীদের মাধ্যমে খোঁজখবরের পাশাপাশি তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও পত্রিকায় প্রেসরিলিজ দিয়েই দায়িত্ব পালন করছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ১২৬ জনপ্রতিনিধি এলাকায় অবস্থান করলেও মাঠে নেই কেউ। নিরাপদ দুরত্বে অবস্থান করে যে যার মত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার চালাচ্ছেন। অপরদিকে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ছাড়া এলাকার বিশিষ্ট সামাজসেবক, সাবেক জনপ্রতিনিধি, পদধারীরাও অনেকেই এলাকার বাইরে অবস্থান করছেন। বিভিন্ন সময়ে তাদের মাঠে দেখা গেলেও এই মরণব্যাধি করোনা প্রতিরোধে তাদের দেখা যাচ্ছে না। এতে গরীব ও অসহায়দের মাঝে তারা আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু হয়ে দাড়িয়েছে। সবমিলে এখন পর্যন্ত কোন তৎপরতা কারো লক্ষ্য করা যায়নি।

গরীব অসহায় অনেকের সাথে কথা হলে তারা জানায়, জনপ্রতিনিধিরা প্রায় সবাই বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার অথচ জনগণের সুখ-দুঃখে একসঙ্গে থাকা এবং কাজ করার অঙ্গীকার দিয়ে তারা জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছিলেন। তখন আরও নানা প্রতিশরুতি দিলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের দেখা যাচ্ছে না। তবে সরকারি ত্রান সহয়তা অব্যাহত রয়েছে। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন জায়গায় তা বিতরন চলছে।

প্রসঙ্গত, চিরিরবন্দর উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত কোন রোগী নাই। হোম কোয়ারেন্টাইনে আছে ২৬ জন। তারা সবাই হোম কোয়ারেন্টাইন শেষ করেছেন।


ঢাকা, সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ১৭৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন