সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ | ০১ ডিসেম্বর ২০২০

জয়পুরহাটের বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

BorailUP.jpg
জয়পুরহাট প্রতিনিধি :

জয়পুরহাটের ক্ষেতলালের বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে একাধিক অনিয়মের অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করে কেন তাকে চুড়ান্ত ভাবে তার পদ থেকে অপসারণ করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ।

গত ২২ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সরকার বিভাগ, ইউনিয়ন পরিষদ-১ শাখার উপ-সচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপন ও চিঠিতে এ আদেশ জারি করেন।

অভিযোগে জানা যায়, ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউনিয়নের ১০ টি ভিজিডি কার্ড কাটাকাটি / ফ্লুইট ব্যবহার, পৌরসভার ০২ জন বাসিন্দাকে ভিজিডি কার্ডের সুবিধা, তালাক দেওয়ার পরও উপকারভোগীর স্বামীকে ১৬ মাস ধরে ৩০ কেজি চাল প্রদান সহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় স্থানীয় সরকার বিভাগ ৪৬.০০.৩৮০০.০১৭.২৭.০০১.১৬-৯৮৩ নং স্মারকের প্রজ্ঞাপনে জনস্বার্থে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং ৪৬.০০.৩৮০০.০১৭.২৭.০০১.১৬-৯৮৪ নং স্মারকের আরেকটি নোটিশে সাময়িক বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে তার পদ হতে চুড়ান্তভাবে অপসারণ করা কেন হবে না মর্মে ১০ কার্য দিবসের মধ্যে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সাময়িক বরখাস্তকৃত বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরের মুঠোফোনে বক্তব্য নিতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমার কোন বক্তব্য নেই। চিঠিতেই তো দেখেছেন।

ক্ষেতলাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.এফ.এম আবু সুফিয়ান বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কেন তাকে চুড়ান্ত অপসারণ হবে না মর্মে আরেকটি চিঠিতে ১০ কার্য দিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।


ঢাকা, বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // উ জ এই লেখাটি ৬১৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন