সর্বশেষ
শনিবার ১৪ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ | ২৮ নভেম্বর ২০২০

গৃহবধূকে নির্যাতন: দেলোয়ারের আরো দুই সহযোগী গ্রেফতার

বুধবার, অক্টোবর ৭, ২০২০

004.jpg ছবি উৎস : সংগৃহীত
বিডিলাইভ ডেস্ক :

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় দায়ের করা দুটি মামলায় আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো রাসেল ও সোহাগ।

মঙ্গলবার রাতে একলাশপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলায় আটজনকে গ্রেপ্তার করা হলো। জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে।

তিনি জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলায় গত সোমবার থেকে আসামি মো. রহিম ও রহমত উল্যা তিন দিন করে মোট ছয় দিনের রিমান্ডে রয়েছেন। এ ছাড়া মামলায় প্রধান আসামি বাদল দুটি মামলায় সাত দিন এবং একলাশপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন ওরফে সোহাগ একটি মামলায় তিন দিনের রিমান্ডে রয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রিমান্ডে থাকা আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় নূর হোসেন রাসেল ও সোহাগের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। এ জন্য তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, রোববার (৪ অক্টোবর) দুপুরের দিকে ঘটনার ৩২ দিন পর গৃহবধূকে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ পেলে তা ভাইরাল হয়। এর পর বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয় প্রশাসনের। ঘটনার পর থেকে গত ৩২ দিন অভিযুক্ত স্থানীয় দেলোয়ার, বাদল, কালাম ও তাদের সহযোগীরা নির্যাতিতা গৃহবধূর পরিবারকে কিছু দিন অবরুদ্ধ করে রাখে। একপর্যায়ে তার পুরো পরিবারকে বসতবাড়ি ছাড়তে বাধ্য করলে পুরো ঘটনা দীর্ঘদিন স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ প্রশাসনের অগোচরে থাকে। পরে ঘটনার জানাজানি হলে পুলিশ ও র‌্যাব কয়েক দফায় অভিযান পরিচালনা করে প্রধান আসামিসহ এ পর্যন্ত আট জনকে গ্রেফতার করেছে।


ঢাকা, বুধবার, অক্টোবর ৭, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৪৮৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন