সর্বশেষ
সোমবার ১৬ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ | ৩০ নভেম্বর ২০২০

আদালতে তিন কনস্টেবলের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি : রায়হান হত্যা

সোমবার, অক্টোবর ১৯, ২০২০

12_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

সিলেটে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনে রায়হান উদ্দিন (৩০) নামে যুবক নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলায়  আদালতে তিন কনস্টেবলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি  দিয়েছেন।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) বিকেল ৩টা থেকে অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিচারক মো. জিহাদুর রহমানের আদালতে ২২ ধারায় সাক্ষ্য দেন কনস্টেবল সাইফুল, দেলোয়ার ও শামীম। আদালত সূত্র জানায়, রায়হান হত্যার ঘটনার বর্ণনা দিতে তিনজনকে আদালতে হাজির করা হয়।

গত রোববার (১১ অক্টোবর) ভোররাতে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর আকবরসহ চার পুলিশকে বরখাস্ত ও তিন জনকে প্রত্যাহার করা হয়। ঘটনার পর রোববার থেকে আকবর পলাতক রয়েছেন।

এদিকে স্বজনদের অভিযোগ, শনিবার বিকেলে ডাক্তারের চেম্বারের কম্পাউন্ডার হিসেবে কর্মরত রায়হান কাজে বের হয়ে যাওয়ার পর রাত ১০টা থেকে তার মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। রাত ৪টা ৩৩ মিনিটে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে রায়হান তার মাকে কল করে কথা বলেন। ওই কলে রায়হান কাঁদতে কাঁদতে জানান যে তাকে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে আটকে রেখেছে এবং টাকা না দিলে ছাড়বে না। এরপরই ভোর সাড়ে ৫টায় চার হাজার টাকা নিয়ে রায়হানের চাচা হাবিব উল্লাহ ফাঁড়িতে গেলে কর্তব্যরত ব্যক্তিরা তাকে ১০টার সময় ১০ হাজার টাকা নিয়ে আসতে বলেন। তিনি ১০টায় টাকা নিয়ে গেলে তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজে যেতে বলা হয় এবং সেখানে গিয়ে তিনি জানতে পারেন যে ৭টা ৪০ মিনিটে রায়হানের মৃত্যু হয়েছে।

মামলাটি পুলিশ সদর দফতরের নির্দেশ পিবিআইতে স্থানান্তর হয়। তদন্তভার পাওয়ার পর পিবিআইর টিম ঘটনাস্থল বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ি, নগরের কাস্টঘর, নিহতের বাড়ি পরিদর্শন করে। সর্বপরি মরদেহ কবর থেকে তোলার পর পূনরায় ময়নাতদন্ত করা হয়।


ঢাকা, সোমবার, অক্টোবর ১৯, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৬৮৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন