সর্বশেষ
বুধবার ১১ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ | ২৫ নভেম্বর ২০২০

পদ্মা সেতুতে বসলো ৩৫তম স্প্যান,দৃশ্যমান ৫ হাজার ২৫০ মিটার

শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০

Padma.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

পদ্মা সেতুোত ৩৫তম স্প্যান বসানো হয়েছে। শনিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে সেতুর মাওয়া প্রান্তে ৮ ও ৯ নম্বর পিয়ারের ওপর স্প্যান ২-বি বসানোর হয়। এর ফলে সেতুর মোট ৫ হাজার ২৫০ মিটার দৃশ্যমান হল। নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক (মূল সেতু) দেওয়ান আব্দুল কাদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, বিকাল পৌনে ৩টার দিকে ৩৫তম স্প্যান বসানো সম্পূর্ণ হয়েছে। পরবর্তী স্প্যান বসানো হবে নভেম্বরের ৪ বা ৫ তারিখ।

এর আগে সকাল সোয়া ৯টার দিকে স্প্যান নিয়ে যায় ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই। সকাল থেকে প্রকৌশলীদের চেষ্টার পর সফলভাবে স্প্যান বসানো সম্ভব হয়।

জানা যায় যে, শুক্রবার স্প্যানটি বসানোর কথা ছিল। কিন্তু নদীতে চর পড়ে নাব্য সংকট সৃষ্টি হয়। যেখানে বর্ষা মৌসুমে পানি ছিল ১৩০-১৫০ ফুট সেখানে পানি কমে হয়ে গেছে মাত্র ৭ ফুট। তাই গত দুই দিন ড্রেজিং করে নাব্য ফেরানো হয়েছে।

জানা গেছে, বাকি রয়েছে মাত্র ছয়টি স্প্যান বসানোর কাজ। সেতুতে মোট ৪১টি স্প্যান বসানো হবে।প্রকৌশলীরা জানান, বর্ষার কারণে গত চার মাস বন্ধ থাকার পর অক্টোবরে পুনরায় স্প্যান বসানোর কাজে গতি আসে। এ মাসে চারটি স্প্যান বসানো হলো। পরিকল্পনা আছে ডিসেম্বরের ১০ তারিখের মধ্যে বাকি স্প্যান ছয়টি বসানো হবে।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল পদ্মা সেতুতে মোট ৪২টি খুঁটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে মাওয়া প্রান্তে ২১টি ও জাজিরা প্রান্তে ২১টি। আর এই ৪২টি খুঁটির ওপর স্প্যান বসবে ৪১টি ।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এরপর একে একে বসানো হলো ৩৩টি স্প্যান। প্রতিটি স্পেনের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। ৪২টি পিলারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে সবকটি খুঁটি এরই মধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে।

মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন। দুটি সংযোগ সড়ক ও অবকাঠামো নির্মাণ করেছে বাংলাদেশের আবদুল মোমেন লিমিটেড। বহুমুখী এ সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো। পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর ২০২১ সালেই যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।


 


ঢাকা, শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // উ জ এই লেখাটি ৯৯৫৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন