সর্বশেষ
মঙ্গলবার ৩০শে আষাঢ় ১৪২৭ | ১৪ জুলাই ২০২০

ফেসবুকেও চলছে ঈদ আনন্দ

শনিবার, জুলাই ১৮, ২০১৫

1873081700_1437218361.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :
ঈদে নানান আয়োজন ছিল চারদিকে। ফেসবুকও নেই পিছিয়ে। সেলিব্রেটি থেকে শুরু করে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ঈদের উচ্ছ্বাসের বাঁধ ফ্রেমে কিংবা স্মৃতিতে রাখতে একের পর এক ছবি আপলোড করছেন। আর ফেসবুকে আনন্দের বন্যা বইছে।

ঈদের উৎসবে মেতেছে দেশ। পবিত্র মাহে রমজানে দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর সারাদেশের মুসলমান আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করছে। সকাল হওয়ার সাথে সাথে রঙবেরঙের পাঞ্জাবি পরে শিশু, কিশোর, যুবক, বৃদ্ধ ঈদ জামাতে উপস্থিত হতে শুরু করে। নামাজ শেষে করে কোলাকুলি। ঈদ থেমে নেই ফেসবুকেও।

ঈদের নামাযের পর থেকে শুরু হয়েছে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ছবি আপলোড করা। কেউ কেউ আবার স্মার্ট ফোন থেকে ইনস্ট্রাগ্রামও দিচ্ছে নানা আঙ্গিকে। এক কথায় বলতে গেলে সামাজি যোগাযোগ মাধ্যম এখন শুধু বিনোদনের হাতিয়ারই নয়, এটা হয়ে উঠেছে সার্বজনীয় ডিজিটাল সংস্কৃতি।

ঈদ মানেই আনন্দ, কোলাহল এবং পরিবারপরিজনের সঙ্গে সময় কাটানোর এক সুবর্ণ সুযোগ। শহর কিংবা গ্রাম সবখানেই বইছে উচ্ছ্বাস।

আর এই উচ্ছ্বাসের বাঁধ ফ্রেমে কিংবা স্মৃতিতে রাখতে ছবি আপলোড করা করা হচ্ছে ফেসবুকে। ঈদের প্রতিটি মুহূর্তকে তরুণ-তরুণীরা বেঁধে রাখছে সেলফি ফ্রেমে। ঈদে বাড়িতে ফেরার ছবি কিংবা ভাইবোনের সঙ্গে তোলা ছবি অহরহ দেখা যাচ্ছে ফেসবুকে।

সিনিয়র সাংবাদিক জিয়াউদ্দিন সাইমুম বলেন, আমাদের মতো নতুন প্রজন্মের কাছে ফেসবুক ঈদ উদযাপনে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে। আগে ঈদে আমরা একটা মেসেজ বা ফোনকলের জন্য অপেক্ষা করতাম। আর এখন কে কখন মাঠে নামাজ পড়ছে, ঈদে কি রান্না হয়েছে ফেসবুকে তাৎক্ষণিক আপ হচ্ছে। ঈদের ছুটিতে বিভিন্ন জেলায় থেকেও মনে হচ্ছে সব বন্ধু মিলে একসঙ্গে ঈদ করছি।

স্কুলছাত্র আশিকুর রহমান জানায়, ফেসবুক সারাদেশকে একটি পরিবারে পরিণত করেছে। ঈদের নামাজের জামাত, বন্ধুদের সাথে কোলাকুলি করার ভিডিও সবই সে ফেসবুকে শেয়ার করেছে। এতে বন্ধুরা ‘লাইক ও কমেন্ট’ করছে। বিষয়টি খুব উপভোগ করছে বলে জানায় আশিকুর।

কথা হয় সিটি কলেজের ছাত্রী নুসরাত জাহানের সঙ্গে। তিনি নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহার করেন। তবে ওয়ালে তেমন কিছুই শেয়ার করেন না। ঈদ উপলক্ষে প্রচুর মেসেজ ও ভার্চুয়াল ঈদকার্ড পেয়েছেন।

নুসরাত বলেন, ফেসবুকে শুভেচ্ছা জানানো অপেক্ষাকৃত সহজ। এতে সময় ও অর্থ দুটোরই সুরক্ষা হয়। তাশিন বলেন, ফেসবুক আমাদের একে অপরের মধ্যে যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছে।

ঢাকা, শনিবার, জুলাই ১৮, ২০১৫ (বিডিলাইভ২৪) // এম এস এই লেখাটি ২৭৯৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন